বিয়ে জীবনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এক জীবনে একবারই বিয়ে হয়, সেই কারণে বিয়ে নিয়ে মানুষের মাথা ব্যথাও কিছু কম নয়। নির্বিঘ্নে বিবাহিত জীবন অতিবাহিত করতে আগ্রহী সকলেই। সুখী দাম্পত্য জীবনের চাবি কাঠির সন্ধান দিয়ে গিয়েছিলেন চাণক্য। এই ভারতীয় দার্শনিকের নীতি অনুযায়ী এই ধরনের মহিলাদের বিয়ে করা উচিত নয়।

১. রূপ নয় গুণ: পাত্রী নির্বাচনে দর্শনের থেকে গুণের বিচারকেই গুরুত্বও দিতে বলেছেন দার্শনিক চাণক্য। সুন্দর মন হলেই সংসার সুখের হয়।
২. দাম্ভিক: দাপুটে বা দাম্ভিক মহিলাদের থেকে দূরে থাকাই ভালো বলে জানিয়েছেন চাণক্য। কথার রূঢ়তা থেকে অনেক সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে সাংসারিক জীবনে।
৩. ভালো পরিবার: বিয়ের আগে পাত্রীর পরিবার সম্পর্কে ভালো করে খোজ নেওয়া দরকার। পরিবারের পারিপার্শ্বিক পরিবেশের সঙ্গে পাত্রীর পরিচয় জড়িয়ে থাকে।

Advertisement

৪. গৃহকর্ম: বাড়ির কাজ না জানলে তাকে ঘরের বউ করে নিয়ে আসা মুর্খামি। ঘর সামলানোর নূন্যতম জ্ঞান সংসার করার জন্য অপরিহার্য।
৫. ধার্মিক: ধার্মিক মহিলারাই পাত্রী হিসেবে আদর্শ। নাস্তিক পাত্রীকে সঙ্গিনী করতে নিষেধ করেছেন চাণক্য।

৬. ছল: রূপের জোয়ারে যে সকল মহিলা ছলনার আশ্রয় নেয়, তারা সমাজ এবং সংসারের পক্ষে বিপজ্জনক। সুন্দরী হলেও ছলনাময়ী মহিলাদের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখা উচিত।
৭. বিশ্বাস: সম্পর্কে বিশ্বাস না থাকলে কোনোকিছুই ভালো হয় না। এই বিষয়টি সবসময় মাথায় রাখা উচিত। সেই কারণে মিথ্যেবাদী মহিলাদের বিয়ে করলে পস্তাতে হয়।

----
--