কলকাতা : বলিউডের স্টারকিডরা একে একে নিজেদের কেরিয়ার গড়ে ফেলছেন৷ বিগ ব্যানারের কাজ হোক বা সাপোর্টিং রোল সবেতেই সাবলিল তাঁরা৷ আলিয়া ভাট থেকে শুরু করে জাহ্নবী কাপুর, সারা আলি খান, ইশান খাট্টার৷ প্রত্যেকেই নজর কাড়ছেন দর্শকদের৷ এমনকি ডেবিউ ছবি করবেন কিনা তা ঠিক করার আগেই ‘ভোগ’ ম্যাগাজিনের কভারগার্ল হয়ে উঠেছেন শাহরুখ কন্যা সুহানা খান৷ তাঁর গ্ল্যামার এখন হার মানাবে তাবড় তাবড় সব অভিনেত্রীদের৷

বলিউডের স্টারকিডদের সম্বন্ধে তো হরদমই কথা হয়৷ তাঁদের ভালো-খারাপ মিশিয়ে দর্শক আপন করে নিচ্ছেন৷ নিন্দুকরা আবার করণ জোহারকে ‘নেপোটিজম’র অ্যাখ্যাও দিয়ে দিয়েছেন তিনি স্টারকিডদের লঞ্চ করেন বলে৷ এসব গসিপের মধ্যে বাদ পড়ে টলিউড৷ এখানকার স্টারকিডদের নিয়েই কোনও কথাই হয় না৷ স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের মেয়ে অন্বেষা থেকে শুরু করে শ্রাবন্তীর ছেলে অভিমুণ্য, ক্যামেরার আড়ালে থেকেও সোশ্যাল মিডিয়ার লাইমলাইটে রয়েছে৷

স্বস্তিকার মেয়ে অন্বেষার দেখা মিডিয়ায় বহুবার দেখা গিয়েছে, এমনকি স্বস্তিকা অভিনীত টেক ওয়ানেও তাঁর মেয়ের চরিত্রেই অভিনয় করেছে অন্বেষা৷ এখন খুব একটা দেখা যায় না অন্বেষাকে৷ তাই তাঁর ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে একটু উঁকি ঝুঁকি মারলেই বিভিন্ন আপডেট পাওয়া যায়৷ মায়ের মতোই স্টাইল ডিভা হয়ে উঠছে ধীরে ধীরে৷ ফ্যাশন ছাড়াও তার লাইফস্টাইলের আভাসও পাওয়া যায় অ্যাকউন্ট দেখে৷ ঘুরতে বেশ ভালোবাসে অন্বেষা৷ ফুডি তো অবশ্যই৷ এবং মায়ের থেকে প্রিয় বন্ধু তার নেই৷ আর সফট্  টয়ের ওপর অন্বেষার একটা নেশা রয়েছে৷

অন্যদিকে শ্রাবন্তীর ছেলে অভিমুণ্য বেশ সিরিয়াস লুক নিয়েই সব ছবি তুলতে পছন্দ করে৷ ফিটনেস ফ্রিক অভিমুণ্যর চেহারা দেখলে হার মানবেন হিরোরাও৷ বাইসেপ, ট্রাইসেপের ছবিতে ভরতি তার সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট৷ এছাড়াও সেলফি ফ্রিকও বলা যেতে পারে তাকে৷ আইফোন হাতে পেলেই হল আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে পড়ে অভিমুণ্য৷ এই কম বয়েস থেকেই জিমে ডিটারমিনেশন নিয়েই যায় সে৷ আর চোখে মুখে ইনটেনসিটি৷ অনেকের মতে হিরো হওয়ার সব গুণই রয়েছে তার মধ্যে৷

স্টারকিডের তালিকায় রয়েছেন মেঘলা দাশগুপ্তও৷ পরিচালক বিরসার মেয়ে মেঘলা৷ মিষ্টি বাঙালি মেয়ে বলতে যাকে বোঝায় এক কথায় মেঘলা তেমনই৷ সাজগোজ অবিকল মায়ের মতো৷ পরিচালক হওয়ার ইচ্ছে আছে কিনা মেঘলা তা না জানলেও বাবাকে প্রায় কাজে সহযোগিতা করে সে৷ বিভিন্ন টেলিফিল্ম এবং ধারাবাহিকে ইতিমধ্যেই কাজ করেছে মেঘলা৷

----
--