নিরাপত্তার স্বার্থে হাওড়াকে সিসিটিভিতে মুড়ে ফেলছেন মুখ্যমন্ত্রী

সুমন আদক, হাওড়া: নিরাপত্তার স্বার্থে সমগ্র হাওড়াকে সিসিটিভির আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

এদিন হাওড়ার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে তিনি ঘোষণা করেন, ‘‘অপরাধ ঠেকাতে এবার হাওড়ার প্রতিটি পুলিশ স্টেশন, বিডিও অফিস, হাসপাতাল এবং গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলিকে সিসিটিভি দিয়ে মুড়ে ফেলা হবে৷’’

আরও পড়ুন: সাপের ছোবল খেয়ে জ্যান্ত সাপ নিয়েই হাসপাতালে যুবক

হাওড়ায় আরও ৪টি নতুন থানা তৈরির কথাও ঘোষণা করেন তিনি। এগুলি হবে- সাঁকরাইল, ধুলাগড়, আমতার চন্দ্রপুর ও উলুবেড়িয়ার রাজাপুরে৷

আইনশৃঙ্খলা, পুর পরিষেবা, সংখ্যালঘু উন্নয়ন, ওবিসি, এসসি, এসটি, ১০০ দিনের প্রকল্প, সড়ক নির্মাণ, বন্যা পরিস্থিতি, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প কিংবা কন্যাশ্রী- এদিনের প্রশাসনিক বৈঠকে প্রতিটি বিষয়ের বিস্তারিত খোঁজখবর নেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরে হাওড়ায় প্রশাসনিক বৈঠক থেকে আইনশৃঙ্খলা মোকাবিলায় পুলিশকে আরও তৎপর হওয়ার নির্দেশ দেন৷

আগামী কয়েক মাসের মধ্যে হাওড়া পুরসভার নির্বাচন৷ স্বভাবতই, ভোটকে ‘পাখির চোখ’ করে পুরসভার কাজে আরও গতি আনতে মেয়রকে নির্দেশ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মেয়রের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘হাওড়া পুরসভা প্রথম দিকে ভালভাবে কাজ করছিল৷ এখন কাজে আরও গতি আনতে হবে৷ হাওড়া পুরাতন শহর। এই শহরকে আরও সুন্দর করে নিট অ্যান্ড ক্লিন করে গড়ে তুলতে হবে।’’

আরও পড়ুন: দশ বছরের ভাঙাচোরা রাস্তা সারালেন গ্রামের মহিলারা

খানিক থেমে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘ব্যস্ততার মধ্যেও নতুন পথ খুঁজে নিতে হবে। বর্ষায় জল জমার সমস্যা দূর করতে হবে। লক গেট তৈরি করে সমস্যা দূর করতে হবে।’’

মেয়র রথীন চক্রবর্তী মুখ্যমন্ত্রীকে জানান, জল জমার সমস্যা দূর করার জন্য প্ল্যান করা হয়েছে। পাম্পিং স্টেশন তৈরি করা হয়েছে। বিধায়ক ব্রজমোহন মজুমদার মুখ্যমন্ত্রীকে বলেন, ‘‘দক্ষিণ হাওড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালের করুণ অবস্থা। ফাটল দেখা দিয়েছে। রাস্তা খারাপ। এর মেরামতের প্রয়োজন।’’

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘এর কাজ তো হবেই, পাশাপাশি হাওড়া জেলা হাসপাতালকে নতুন করে ফুল ফেজ হাসপাতাল হিসেবে গড়ে তোলা হবে। হাওড়া জেলা সংশোধনাগার অন্যত্র সরানো হচ্ছে। সেই জায়গায় আরও বড় পরিসরে জেলা হাসপাতাল তৈরি হবে।

আরও পড়ুন: প্রেমিকাকে রক্তমাখা SORRY লিখে আত্মঘাতী সৌরভ

তবে যতদিন না নতুন হাসপাতাল তৈরি হচ্ছে ততদিন পুরনো জায়গাতেই হাসপাতাল থাকবে।’’ আগামী নভেম্বর মাসে লোকসভা ভোট ঘোষণা করে দেওয়া হতে পারে এমন আশঙ্কায় দলের সাংসদদের মমতা বলেন, ‘‘সাংসদ তহবিলের টাকা ফেলে রাখবেন না৷ দ্রুত উন্নয়নের কাজে তা খরচ করতে হবে৷’’

এদিন হাওড়ায় প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী একাধিক প্রকল্পের শিলান্যাস ও উদ্বোধন করেন। হাওড়া পুর নিগমের আর্কাইভ, আরুপাড়া পুলিশ ট্রেনিং অ্যাকাডেমি থেকে হাওড়া রেল গেট পর্যন্ত রাস্তার উদ্বোধন করেন৷ কোনাতে ১৩২/৩৩ কেভি জিআইএস সাব স্টেশন, ঘুসুড়ির পুকুরের সৌন্দর্যায়ন প্রকল্প, স্টেডিয়াম, ঘুসুড়ি নস্কর পাড়া রোডের বাস টার্মিনাল এবং পাঁচলার হাউলি বাগান বাসস্ট্যান্ড থেকে ডাক্তারের চেম্বার পর্যন্ত বিটুমিনাস ও ঢালাই রাস্তা নির্মাণ প্রকল্পের শিলান্যাস করেন৷

আরও পড়ুন: প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্নার জুটিকে ছাপিয়ে গেল ভুটু-চিনির বন্ধুত্ব

এদিনের প্রশাসনিক বৈঠকে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, অরূপ রায়, লক্ষ্মীরতন শুক্লা প্রমুখ হাজির ছিলেন। ছিলেন হাওড়ার মেয়র ডা: রথীন চক্রবর্তী, জেলাশাসক চৈতালি চক্রবর্তী, সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, সাজদা আহমেদ সহ জেলার সমস্ত জন প্রতিনিধি ও প্রতিটি সরকারি দফতরের কর্মকর্তারা হাজির ছিলেন৷

হাওড়া জেলা প্রশাসনের এই বৈঠক উপলক্ষে শরৎ সদন সংলগ্ন সব রাস্তা নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়। রাস্তার দু’ধারে তৈরি করা হয় বাঁশের ব্যারিকেড। এমনকি সিসিটিভির মাধ্যমে নজরদারি করে পুলিশ।

আরও পড়ুন: স্ত্রীর ডেবিট কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন না স্বামী, জানাল আদালত

Advertisement
----
-----