চূড়ান্ত অমানবিকতার শিকার শিশু শ্রমিক

ফাইল ছবি

কলকাতা: চূড়ান্ত অমানবিকতার শিকার হল এক নয় বছরের শিশু শ্রমিক৷ সোমবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে সোনারপুর থানার গড়িয়া কন্দপপুর এলাকার গাজি পাড়ায়৷

বাড়ির কর্ত্রী গরম খুন্তি ও কঞ্চি দিয়ে বেধড়ক মারধর করার ফলে প্রাণের ভয়ে বাড়ি ছেলে পালায় সুন্দরবনের ছোট্ট পরিচারিকা৷ রাজপুর-সোনারপুর পুরসভা এলাকার সাত নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা কৃষ্ণা সর্দার এদিন মারধর করলে বাসন্তীর সোনাখালির এই শিশু কন্যা পালিয়ে পাসের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের ভাঙা মন্দির গম তলায় রাস্তা দিয়ে টলতে টলতে একটি দোকানে গিয়ে খিদে পেয়েছে বলে খাবার চায়৷ তখন ওই দোকানে অনেকই চা খেতে এসেছিল৷ বাচ্ছা মেয়েটির মুখে আঘাতের চিহ্ন দেখে সন্দেহ হওয়ায় জিজ্ঞাবাদ করলে তাকে বাড়ির মালকিন মারধর করেছে বলে জানায়৷

এরপর শিশুটিকে নিয়ে এলাকার লোকজন চলে যান বাড়িটির সামনে৷ এই ঘটনা জানতে পেরেই শোরগোল পড়ে যায়৷ নির্মম অত্যাচারের ঘটনা জানতে পেরেই সোনারপুর থানায় খবর দিলে পুলিশ পরে এলাকায় এসে জখম শিশু পরিচারিকা ও অভিযুক্ত কৃষ্ণা সর্দারকে থানায় নিয়ে যায়৷ শিশু পরিচারিকার নাম সুন্দরী দাস৷ বাবা সুভাষ দাসই তাকে এই বাড়িতে কাজে ঢুকিয়ে ছিল৷

Advertisement ---
---
-----