পরমাণু যুদ্ধের সময় লুকোতে মাটির গভীরে বাংকার তৈরি করেছে চিন

বেজিং: পরমাণু যুদ্ধের আশঙ্কায় দেশের তাবড় নেতাদের জন্য মাটির তলায় বিশেষ বাংকার বানাচ্ছে চিন। যদি কোনও কারণে পরমাণু যুদ্ধ শুরু হয়, তাহলে এই বাংকারগুলিতেই লুকোতে হবে চিনের নেতাদের। ‘সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট’ সংবাদপত্রে এমন রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে।

জানা গিয়েছে, পরমাণু যুদ্ধ শুরু হলে যাতে চিনের নেতারা, তাদের গুরুত্বপূর্ণ সহকর্মীরা, সেনা কর্মকর্তারা ও তাদের স্টাফরা যাতে সুরক্ষা পেতে পারেন সেজন্য এই বাংকার তৈরি করা হয়েছে। বলা হচ্ছে- রাজধানী বেজিংয়ের কাছে ন্যাশনাল পার্কের নিচে ওই বাংকার তৈরি করা হয়েছে। সেখানেই রয়েছে চিনা সরকারের সদরদফতর। রিপোর্টে বলা হয়েছে, ভূ-পৃষ্ঠ থেকে দু’কিলোমিটারের বেশি নিচে এই বাংকার তৈরি করা হয়েছে। বাংকারটিতে রয়েছে পুরু পাথরের শক্ত স্তর।

হংকং থেকে প্রকাশিত পত্রিকাটিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৬ সালে এই বাংকার তৈরির কথা ঘোষণা করা হয়। ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট শি জিংপিং বিশেষ পোশাক পরে এই বাংকার পরিদর্শন করেছিলেন।

- Advertisement -

পত্রিকার খবরে আরও বলা হয়েছে, এই বাংকারকে চিনা পিপলস লিবারেশন আর্মির ‘মস্তিষ্ক’ হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে কারণ যুদ্ধের সময় সমস্ত সিদ্ধান্ত এই বাংকার থেকে নেওয়া হবে। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট দাবি করছে, এ ধরনের বেশ কয়েকটি স্থাপনা তৈরি করেছে বেজিং তবে সেগুলোর কথা গোপন রাখা হয়েছে।

Advertisement
---