তাওয়াং নিয়ে আকসাই চিন ফেরতের চিনা কূটনীতি

নয়াদিল্লি: কূটনৈতিক লেনদেনের প্রস্তাব রেখে ফের সীমান্ত সমস্যাকে খুঁচিয়ে দিল চিন সরকার৷ প্রাক্তন চিনা কূটনীতিক দাই বিঙ্গুও (Dai Bingguo) জানিয়েছেন, দিল্লি যদি অরুণাচল প্রদেশের তাওয়াং ফিরিয়ে দেয় তাহলে বেজিং আকসাই চিনকে ফিরিয়ে দিতে প্রস্তুত৷ এমন মন্তব্যে দিল্লির রাজনৈতিক মহল সরগম৷
INDIA TODAY এই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে৷ ভারতের দাবি, জম্মু-কাশ্মীরের লাদাখের অংশ আকসাই চিনের ৩৮ হাজার বর্গ কিলোমিটার এলাকা দখল করে রেখেছে চিন৷ একইভাবে অরুণাচল প্রদেশের বিরাট এলাকা রয়েছে চিনের দখলে৷

অবসরপ্রাপ্ত চিনা কূটনীতিকের দাবি, সীমান্ত সমস্যা মেটানোর ‘চাবি’ রয়েছে ভারতের হাতেই৷ সেক্ষেত্রে দিল্লি চাইলে অরুণাচলের তাওয়াংয়ের বদলে আকসাই চিন নিতে পারে৷ রিপোর্ট বলছে, আকসাই চিনের ৩৮ হাজার বর্গ কিলোমিটার ও অরুণাচলের ৯০ হাজার বর্গ কিলোমিটার চিনের দখলে রয়েছে৷

বিভিন্ন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের মত, দুটি এলাকা চিনের কাছে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ৷ চিনা কূটনীতির এই বিষয় নিয়ে বিশেষ নজর রাখুক দিল্লি৷

এক নজরে আকসাই চিন:

আকসাই চিন

এটি ভারত ও চিনের সীমান্তে ছড়িয়ে থাকা বিতর্কিত অঞ্চল। ভারতের দাবি, জম্বু এবং কাশ্মীর রাজ্যের লাদাখের অংশ হল আকসাই চিন। এলাকাটি নিজেদের জিনজিয়াং প্রদেশের অংশ বলেই দাবি করে৷ ১৯৬২ সালের ভারত-চিন যুদ্ধের পর অঞ্চলটি চিনের এর দখলে চলে যায়।

তাওয়াং

এক নজরে তাওয়াং:

উত্তর পূর্ব ভারতের সঙ্গে ভুটান ও চিন সীমান্ত সংলগ্ন রাজ্য হল অরুণাচল প্রদেশ৷ এই রাজ্যের তাওয়াং বৌদ্ধদের বিশেষ ধর্মকেন্দ্র৷ তাওয়াং বৌদ্ধ মঠ ঘিরেই এলাকার বিশেষ পরিচিতি৷ ১৫ শতাব্দীর তিব্বতি ধর্মগুরু দলাই লামা তাওয়াংয়েই জন্ম নিয়েছিলেন৷ চিন এই এলাকাকে দক্ষিণ তিব্বত বলে দাবি করে৷ ’৬২ সালের যুদ্ধে এলাকাটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল৷ অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কারণে তাওয়াং বিশেষ পর্যটনকেন্দ্র৷

Advertisement
---
-----