স্যাটেলাইট ইমেজে ধরা পড়ল চিনের গোপন মিসাইল ঘাঁটি

বেজিং:  স্যাটেলাইট ইমেজে ধরা পড়ল সাংঘাতিক দৃশ্য। সিচুয়ানে একগুচ্ছ ব্যালিস্টিক মিসাইল সাজিয়ে রেখেছে চিন। সেইসব মিসাইল প্রায় গোটা ভারতের যে কোনও জায়গায় হামলা চালাতে পারবে। ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চল, এমনকী আমেরিকার কিছু অংশেও হামলা চালাতে পারবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

গত ২৭ মে চিনের শাংজি প্রদেশে Dongfeng-41 নামে একটি মিসাইল পরীক্ষা করে চিন। আর রেঞ্জ ১২০০০-১৫০০০ কিলোমিটার। সেই পরীক্ষা সফল হয়েছে বলেও দাবি করে বেজিং। সংবাদমাধ্যম THE PRINT চিহ্নিত করেছে সেই অবস্থান।

আগেই ভারতের গোয়েন্দারা এই মিসাইলের অবস্থানের কথা জানিয়েছিলেন। এবার উঠে এল সেই ছবি। চিনের সিচুয়ান প্রভিন্সে ইবিন শহরের ১৫ কিলোমিটার পুর্বে তৈরি করা হয়েছে এই মিসাইল গ্যারিসন বা ঘাঁটি। তিন বছর আগে এতির নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।

- Advertisement -

এই মিসাইল ঘাঁটির মধ্যে রয়েছে একটি ফুটবল খেলার মাঠ। রয়েছে দুটি বাস্কেটবল গ্রাউন্ড। সম্ভবত মাটির তলায় ইগলুর আকারের কিছু রয়েছে। ১৫টি তিনতলার C আকারের ব্যারাক রয়েছে। সেখানেই চিনা সেনা থাকে বলে মনে করা হচ্ছে। ঘাঁটিতে ঢোকার চারটি এন্ট্রান্স রয়েছে। উঁচু দেওয়ালে ঘেরা সেই ঘাঁটি। চারপাশে ২০০ মিটার পর্যন্ত ক্যামেরার নজরদারি রয়েছে।

এর আগেও বিভিন্ন সময় চিনের এই ধরনের অস্ত্র বা সেনা সজ্জার ছবি দেখা গিয়েছে।

জানুয়ারিতে স্যাটেলাইট ইমেজে দেখা গিয়েছিল, চিনে রয়েছে এয়ার ডিফেন্স গান, যা ভারতের ফাইটার জেটকে আঘাত করতে ব্যবহার করার জন্য রাখা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছিল। ডোকলাম সংঘাত শেষ হওয়ার পাঁচ মাস পর দেখা যায় ডোকলাম থেকে মাত্র ৮১ মিটার দূরে একটি মিলিটারি কমপ্লেক্স বানিয়েছে চিন।

ভুটানের যে অংশকে চিন নিজেদের বলে দাবি করে, সেখানেই হয়েছে ওই মিলিটারি বেস। এমনটাই দেখা গিয়েছে ওই ছবিতে। ছবিতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, একদিকে ভারতের অন্তর্গত সিকিমের ডোকা লা গিরিপথ, অন্য পাশে চিনের সিঞ্চে লা গিরিপথ ও মাঝে চুম্বি উপত্যকায় বিতর্কিত অংশ ডোকলাম।

Advertisement ---
---
-----