ভারতে নাশকতা চালাতেই বাংলাদেশে ঢুকল জাহাজ ভর্তি চিনা অস্ত্র!

ঢাকা: অস্ত্র আসছিল চিন থেকে। বাংলাদেশের জলে পৌঁছতেই ধরে ফেলল বাংলাদেশের শেখ হাসিনা সরকার। ওই সব অস্ত্র উত্তর-পূর্ব ভারতে সক্রিয় জঙ্গিগোষ্ঠীর হাতে তুলে দেওয়ার জন্যই আনা হচ্ছিল বলে জানা গিয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই বাংলাদেশ সরকারের এই পদক্ষেপ ঢাকা-নয়াদিল্লি সম্পর্কে নতুন মোড় তৈরি করল, একথা বলা যেতেই পারে।

আর এই ঘটনায় বাংলাদেশের সরকারের নজরে এসেছে সেখানকার উচ্চপদস্থ কোস্ট গার্ডের আধিকারিকেরা। এটিকে অবৈধভাবে অস্ত্র পাচারের ঘটনা বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। পুরো বিষয়টাতে নজর রাখছে নয়াদিল্লিও। বাংলাদেশে নির্বাচনের আগে কোনও বিদেশি শক্তি অশান্তি তৈরির চেষ্টা করছে কিনা সেটাই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দুই দেশের নিরাপত্তাবাহিনী কড়া নজর রাখছে এই ঘটনায়।

চিন থেকে আসা অস্ত্র ঢাকায় পৌঁছতেই সন্দেহ করা হচ্ছে, নির্বাচনের আগে এটা একটা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত পরিকল্পনা। এবছরের শেষেই ভোট রয়েছে বাংলাদেশে। ২০০৪ সালে ঠিক এরকমই ঘটনা ঘটেছিল। উলফা ও অন্যান্য জঙ্গি সংগঠনের জন্য চিন থেকে ১০টি ট্রাক ভর্তি অস্ত্র এসেছিল। সেগুলি ধরা পড়ে চট্টগ্রামে। যে ঘটনায় অভিযুক্ত ছিলেন তৎকালীন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক জিয়া।

- Advertisement -

তবে এবার দেখা যাচ্ছে, ঠিক যে সময়ে অস্ত্রগুলো এসে পৌঁছেছে তখনই বাংলাদেশের কোস্ট গার্ড থেকে উধাও বাংলাদেশের কিছু জাহাজ। এতেই উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের ভূমিকা নিয়ে সন্দেহ তৈরি হয়েছে।

বাংলাদেশের সরকারের অনুমান, শুধু বাংলাদেশ নয় ভারতেও অশান্তি পাকানোর চেষ্টায় ঢোকানো হচ্ছিল ওই চিনা অস্ত্র। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর থেকে অপেক্ষাকৃত শান্ত রয়েছে ভারতের উত্তর-পূর্ব অংশ।

Advertisement
-----