‘চৌকিদার ইজ পিওর, হি ইজ দ্য কিওর…’

লখনউ: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চৌকিদার চোর হ্যায় এই স্লোগানে যখন বিরোধীরা বিঁধতে ব্যস্ত তখন সেই স্লোগানকেই হাতিয়ার করে ময়দানে নামলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং৷ তিনি বললেন, দেশের সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীই হলেন ‘cure’. তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রী দরিদ্র, কৃষক, সমাজে পিছিয়ে পড়া মানুষদের জন্য কাজ করে চলেছেন৷

মোরাদাবাদের একটি অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘চৌকিদার চোর নহি, চৌকিদার পিওর হ্যায়৷ নেক্সট পিএম সিওর হ্যায়, প্রবলেমকে লিয়ে কিওর হ্যায়৷’ অর্থাৎ, চৌকিদার চোর নয়, চৌকিদার পিওর(পবিত্র)৷ পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী মোদীই৷ দেসের সমস্যা সমাধান একমাত্র তিনিই করতে পারেন৷

প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুযারি, রাফায়েল নিয়ে বারবার প্রশ্ন তুলেছেন রাহুল গান্ধী। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্টের ভিত্তিতে শুক্রবার আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে। লোকসভায় নরেন্দ্র মোদীর কড়া ভাষণের পর জবাবে রাহুল বলেন, অনিল অম্বানির আতে ৩০,০০০ কোটি টাকা তুলে দিয়েছেন মোদী। তাঁর দাবি, সেনাবাহিনীর ৩০,০০০ কোটি কার্যত চুরি করা হয়েছে। সেই টাকাই সেনাবাহিনীর অনেক কাজ লাগতে পারত বলেও সাংবাদিক বৈঠকে মন্তব্য করেন রাহুল।

‘দ্য হিন্দু’ সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে রাহুল গান্ধী আক্রমণ শানান এদিন। সর্বভারতীয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে রাফায়েল যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের হস্তক্ষেপ চায়নি প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। কংগ্রেস সভাপতি বলেন এই রিপোর্ট থেকে স্পষ্ট হয়ে যায় প্রধানমন্ত্রী দফতর রাফায়েল যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে হস্তক্ষেপ করেছিল শুধু তাই নয় এরপর সুপ্রিম কোর্টের রায়ও প্রশ্নের মুখে পড়ে।

রাহুল বলেন, প্রতিবেদন থেকেই প্রমাণ হয়ে যায় চৌকিদারই চোর। সাংবাদিক সম্মেলনে এভাবেই প্রধানমন্ত্রীকে তীব্র আক্রমণ করেন রাহুল। এর আগেও একাধিকবার এই প্রসঙ্গে সুর চড়িয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি।

---- -----