বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের ঘটনায় দ্বিতীয় নোটিশ ঋতব্রতকে

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের ঘটনায় অভিযুক্ত রাজ্যসভা সাংসদ তথা প্রাক্তন সিপিএম নেতা ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফের নোটিশ পাঠাল সিআইডি৷ বুধবারের পর শনিবার তাঁকে দ্বিতীয় নোটিশ পাঠানো হয়৷ আগামী মঙ্গলবার সকাল ১১টার সময় ভবানিভবনে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে৷ এদিন দুপুরে তাঁর গড়ফার বাড়িতে গিয়ে নোটিশ দিয়ে এসেছে সিআইডি৷

এই মামলায় জেরার জন্য গত বুধবার প্রথম নোটিশ পাঠানো হয়েছিল ঋতব্রতকে৷ শুক্রবার হাজিরা দিতে বলা হয়েছিল৷ কিন্তু ঋতব্রত হাজিরাও দেননি৷ জেরার মুখোমুখি না হওয়ার কোনও কারণও জানাননি তদন্তকারীদের৷ সেজন্যই এদিন তাঁকে ফের হাজিরার নোটিশ পাঠানো হয়েছে৷ আগামী মঙ্গলবারও তিনি যদি হাজিরা এড়িয়ে যান তাহলে তাঁর ক্ষেত্রে আইনি ব্যবস্থা নিতে পারে সিআইডি৷ আদালতে জানিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাও জারি করা হতে পারে৷

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবারই বালুরঘাট থানায় ঋতব্রতর বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন বালুরঘাটের এক তরুণী৷ তারপর অভিযোগকারিণীর মেডিক্যাল টেস্টও করা হয়৷ গত বুধবার ওই মামলার তদন্তভার নেয় সিআইডি৷ সেদিনই হাজিরার নোটিশ পাঠানো হয় ঋতব্রতকে৷

- Advertisement -

বালুরঘাটের বাসিন্দা ওই তরুণীর অভিযোগ, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দীর্ঘ দিন ধরেই তাঁর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়েছেন ঋতব্রত। কিন্তু, বার বার বিয়ের কথা বলা সত্ত্বেও তাতে রাজি হননি সাংসদ। তবে সব অভিযোগই অস্বীকার করেন ঋতব্রত। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে সোমবার। সফ্‌টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার ওই তরুণীর আরও দাবি, বিষয়টি চেপে যাওয়ার জন্য তাঁকে লোক দিয়ে হুমকি দেন সাংসদ। এমনকী, তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে আড়াই লক্ষ টাকাও পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

তবে ঋতব্রতের পাল্টা দাবি, গত বছর দুরারোগ্য ব্যাধির নাম করে তাঁর কাছ থেকে পাঁচ লক্ষ টাকা সাহায্য আদায় করেন ওই তরুণী। কিন্তু, পরে নিজের ভুল বুঝতে পারেন ও অর্থসাহায্য বন্ধ করে দেন তিনি। সাংসদের দাবি, এর পরেই তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনেন ওই তরুণী।

Advertisement
---