সম্পন্ন নাগরিকরা রেশনে আর ২ টাকায় চাল পাবেন না

স্টাফ রির্পোটার, কলকাতা: উচ্চবিত্ত নাগরিকদের জন্য আলাদা হচ্ছে রেশনের নিয়ম৷ বিপিএলদের মতো ২ টাকা কিলোদরে খাদ্যশস্য মিলবে না তাঁদের৷ খাদ্য দফতর সূত্রে খবর, ‘‘একটি বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে সমঝোতা করেছে দফতর৷

এবার থেকে রেশন দোকানেই খাদ্যশস্যের সঙ্গে মিলবে বিভিন্ন ধরনের বিস্কুট, হেল্থড্রিঙ্ক, টুথপেস্ট ও অন্যন্য প্রসাধনী সামগ্রী৷ যাঁরা খাদ্যশস্য পাবেন না তারা রেশন দোকান থেকে কম দামে এইসব সামগ্রী কিনতে পারবেন৷ ভরতুকি বাবদ সেই সংস্থাকে বাকি টাকা মেটাবে সরকার৷’’ সম্প্রতি খাদ্য দফতরে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে এমনই সিদ্ধান্ত হয়৷ ইতিমধ্যেই এই সংক্রান্ত ফাইল মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে পাঠানো হয়েছে৷ এখন শুধু মুখ্যমন্ত্রীর সবুজ সংকেতের অপেক্ষা৷

জানা গিয়েছে, দুই ধরনের রেশন কার্ডের মাধ্যমে এই ভাগ করা হবে৷ একটি পিডিএস কার্ড৷ অন্যটি নন পিডিএস৷ পিডিএস কার্ডের অধীনে যাঁরা, শুধুমাত্র তাঁদেরই মিলবে রেশনের খাদ্যশস্য৷ আর নন-পিডিএস গ্রাহকেরা খাদ্যশস্য বাদে কম দামে জিনিস কিনতে পারবেন৷ ২০১১ সালে খাদ্য দফতরের এক সমীক্ষায় উঠে আসে, অনেক সম্পন্ন পরিবারই রেশনের মাধ্যমে আর খাদ্যশস্যের উপর নির্ভর করে না৷ অনেকে আবার স্রেফ সহানুভূতিবশত তুলনামূলকভাবে কম আয় সম্পন্ন পরিবারগুলিকে নিজস্ব রেশন কার্ডের মাধ্যমে সেই খাদ্যশস্য তোলার সুযোগ দেন৷ এবার ভরতুকিতে বণ্টিত খাদ্যশস্য যাতে সরাসরি বিপিএলভুক্ত ও সমপর্যায়ের নাগরিকরা পান সেই ব্যবস্থা পাকা করতেই এবার পদক্ষেপ নিতে চলেছে সরকার৷

বেশ কিছুদিন আগে ডিজিটাল রেশন কার্ডের মাধ্যমে এই ব্যবস্থা চালু করা হয়েছিল৷ কিন্তু সেই ডিজিটাল রেশন কার্ড নিয়ে প্রচুর ঝামেলা হয়৷ এক লোকের ডিজিটাল রেশন কার্ড অন্যজন হস্তগত করে জাল নামেই রেশন দোকান থেকে মাল তুলছে এই রকম নজির মিলেছে ভূরি ভূরি৷ নিয়ম অনুসারে বিপিএলভুক্ত কিংবা সমপর্যায়ের ডিজিটাল রেশন কার্ডহোল্ডারদের নিতান্ত কম দামে খাদ্যশস্য পাওয়ার কথা৷ কিন্তু ডিজিটাল রেশন কার্ডের থেকেও এই পিডিএস-নন পিডিএস কার্ড আরও উন্নত বলেই জানাচ্ছে খাদ্য দফতর৷ তবে এখনও বেশ কিছু জায়গায় ডিজিটাল রেশন কার্ড চালু হয়নি৷

সেক্ষেত্রে সাধারণ নাগরিকরা নিতান্ত কমদামে রেশনের চাল-গম তুলতে পারছেন না বলেই অভিযোগ৷ এই ধরনের অভিযোগ খতিয়ে দেখে সর্বত্র ডিজিটাল রেশন কার্ডের ব্যবস্থা করে তার পরই পিডিএস-নন পিডিএস কার্ড করা হবে বলে জানিয়েছে দফতর৷

বরাবরই রেশন কার্ডে কেরোসিন তেল মিলত৷ তবে সেই ব্যবস্থা শহরে অনেক জায়গাতেই উঠে গিয়েছে৷ যেসব জায়গায় চালু আছে সেখানে অনেক সম্পন্ন পরিবারের রেশন কার্ড নিয়ে কম আয়সম্পন্ন পরিবারগুলি কেরোসিন তেল ঘরে তোলে৷ আবার বহু ক্ষেত্রে সম্পন্ন পরিবারের লোককেও বিপিএল রেশন কার্ড বানিয়ে ভরতুকির খাদ্যশস্য থেকে কেরোসিন তেল সবই তুলতে দেখা যায়৷ কিন্ত পিডিএস-নন পিডিএস কার্ড বাজারে এলে যাঁরা নন পিডিএস কার্ডের আওতায়, তাঁরা রেশনের দোকান থেকে আর এইসব নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পাবেন না বলেই জানা গিয়েছে৷ তবে এই ব্যবস্থা চালু হলে অনেক প্রতারকের ক্ষোভের মুখে সরকার পড়তে পারে বলেই ধারণা রাজনৈতিক মহলের কোনও কোনও অংশের৷

তবে শুধু এই নতুন গণবণ্টন বন্দোবস্ত নয়, আগামী দিনে খাদ্য দফতরের আরও চমক রয়েছে৷ ডিজিটাল কার্ডের সমান নন-পিডিএস মিনিয়েচার চিপ বেসড রেশন কার্ড আনবে সরকার৷ খুব শীঘ্রই তা আনা হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী৷

Advertisement
----
-----