স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: শাসনের নামে অমানবিক নির্যাতন। এমনই অভিযোগ উঠল স্কুলের  শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়া জেলার লিলুয়ার চামরাইল হাইস্কুল। বৃহস্পতিবার ওই স্কুলের দশম শ্রেণির এক ছাত্রকে ক্লাসের মধ্যে বেদম প্রহার করা হয় বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন- ভিন রাজ্যে পালাতে গিয়ে হাওড়া স্টেশনে আটক কিশোর

ছাত্রটি জানায়, এক বন্ধুর সঙ্গে ঝগড়া করার অপরাধে ক্লাসের মধ্যে শিক্ষক তাকে মারধর করেন। চুলের মুঠি ধরে টেবিলে মাথা ঠুকে দেওয়া হয়। এখানেই শেষ হয়নি, প্রধান শিক্ষকের অত্যাচার। দশম শ্রেণীর পড়ুয়া কিশোরকে গলা টিপে ধরা হয় এবং চড় মারা হয় বলেও উঠেছে অভিযোগ। তার কোনও কথা শুনতে চাননি ওই শিক্ষক। ছাত্রের পরিবার সূত্রের খবর অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে লিলুয়া থানায় অভিযোগ জানানো হয়েছে।

অভিযোগ, দুই ছাত্রের মধ্যে ক্লাসে ঝগড়া হলেও, ওই শিক্ষক কেবলমাত্র একজন ছাত্রের অভিযোগ শুনেই অন্য ছাত্রকে শাস্তি দেন। ক্লাসরুমের মধ্যেই যখন দুই সহপাঠির ঝগড়া চলছিল সেই সময়ে ক্লাসে আসেন ওই শিক্ষক। তখনই এক ছাত্রের আভিযোগ শুনে অন্য ছাত্রকে মারধর করেন তিনি। স্কুল ছুটির পর অন্য বন্ধুরা মিলে নিগৃহীত ছাত্রকে বাড়ি পৌঁছে দেয়। গোটা ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনায় শিক্ষক ক্ষমা চেয়েছে।

----
--