বিশ্ব পরিবেশ দিবসে ক্লিন ও গ্রিন হলদিয়া গড়ার প্রতিশ্রুতি

স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া: রাজ্যের অন্যতম শিল্প তালুক হলদিয়া। আর সেখানেই গড়ে উঠেছে ছোট বড় প্রায় কয়েকশো শিল্প। তার ফলে প্রতিনিয়ত দূষণ হচ্ছে পরিবেশে। তাই বিশ্ব পরিবেশ দিবসে ‘‘ক্লিন ও গ্রিন হলদিয়া’’ গড়ে তুলতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করল হলদিয়ার বিভিন্ন শিল্প সংস্থা।

৫ জুন মঙ্গলবার বিশ্ব পরিবেশ দিবস৷ সেই উপলক্ষ্যে হলদিয়া ইন্ডিয়ান ওয়েল (আইওসি) ও হলদিয়া উপকূল রক্ষীবাহিনীর যৌথ উদ্যোগে হলদিয়ার টাউনশিপ নদীর পাড়ে বৃক্ষরোপণ, প্লাস্টিক বর্জন সহ একাধিক কর্মসূচী পালিত হল। এই অনুষ্ঠানে এলাকার বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন হলদিয়া ইন্ডিয়ান ওয়েলের ইডি সি কে তেওয়ারী, হলদিয়া পুরসভার চেয়ারম্যান শ্যামল আদক এবং হলদিয়া উপকূল রক্ষীবাহিনীর আধিকারিকরা। এদিন প্রায় ২০ লক্ষ চারাগাছ রোপণ করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর৷

এই প্রসঙ্গে হলদিয়া পুরসভার চেয়ারম্যান ও হলদিয়া ইন্ডিয়ান ওয়েল সংস্থার ইডি সি কে তেওয়ারি বলেন, ‘‘হলদিয়া শহরকে দূষণমুক্ত ও গ্রিন সিটি গড়ে তোলার লক্ষ্যে আমরা এগিয়ে এসেছি৷ শুধু তাই নয়, বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষ্যে নির্দিষ্ট কোনও একটি দিন পালন নয়৷ সারা বছর ধরে এলাকার বিভিন্ন প্রান্তে ২০ লক্ষ চারাগাছ রোপণের কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে। সেই সঙ্গে এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে প্লাস্টিক বর্জনের উপরও বিশেষ নজদারির ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনা বৃদ্ধি করার জন্য নানা বিধ পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, প্রতিনিয়ত আমাদের এই পরিবেশ দূষণের গ্রাসে চলেছে৷ নজর করলে দেখা যাবে আগের থেকে পাখির সংখ্যাও কমেছে পরিবেশে৷ চারিদিকে কংক্রিটের জঙ্গলে মানুষের প্রাণ এখন ওষ্ঠাগত৷ জীবনের ইঁদুর দৌড়ে আজ পরিবেশকে নিজের অজান্তে হারাতে চলেছে সমগ্র জীবকূল৷ তবে এখনও সেই সময় রয়েছে৷ একটু সময় পরিবেশের জন্য ব্যয় করলে আখেড়ে নিজেরই লাভ, এমনটাই বলছেন বিশেষজ্ঞের দল৷

গাছ কেটে বড় বড় ইমারত না বানিয়ে যদি আরও বেশি করে গাছ লাগানো যায় তাহলে তা পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করবে৷ সবুজান্নয়ন বর্তমান জীবনে বিশেষ ভাবে প্রয়োজন৷ তাই এই বিশ্ব পরিবেশ দিবসে সর্বত্র চলছে বৃক্ষরোপণের কাজ৷

Advertisement ---
---
-----