কাজান: অপ্রত্যাশিতভাবে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে তুলনায় সহজ প্রতিপক্ষের কাছে হেরেছে দু’দলই৷ কলম্বিয়া ১-২ গোলে হার স্বীকার করেছে জাপানের কাছে৷ একই ব্যবধানে পোল্যান্ড পরাজিত হয়েছে সেনেগালের বিরুদ্ধে৷ সুতরাং কাজানে কলম্বিয়া-পোল্যান্ড মুখোমুখি লড়াই মহা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল দু’দলের কাছেই৷

নির্নায়ক না হলেও টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যাওয়ার প্রসঙ্গটাই আশঙ্কায় রেখেছিল আমেরিকা ও ইউরোপ, দুই মহাদেশের অন্যতম শক্তিশালী দুই ফুটবল রাষ্ট্রকে৷ ড্র হলে তবু গ্রুপের শেষ রাউন্ডের মহানাটকে নকআউটের টিকিট হাতিয়ে নেওয়ার একটা সুযোগ থাকত যুযুধান দুই প্রতিপক্ষের সামনেই৷ কিন্তু ফলাফল কারও অনুকূলে যাওয়া মানেই অপর দলের দেশে ফেরার টিকিট নিশ্চিত৷

হলও তাই৷ ড্র’য়ের মিলনান্তিক একাঙ্ক নাটক নয়, আক্রমণ-প্রতিআক্রমণের উত্তেজক যাত্রাপালা শেষে শেষ হাসি হাসে কলম্বিয়া৷ ৩-০ গোলের বড় জয় তুলে প্রি-কোয়ার্টারের লড়াইয়ে টিকে থাকে তারা৷ বিদায় নিশ্চিত হয়ে যায় পোলিশদের৷ অর্থাৎ বায়ার্নের সতীর্থ লেওয়ানডোস্কিকে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে দিয়ে নকআউটের সম্ভাবনা জিইয়ে রাখেন জেমস রডরিগেজ৷

ম্যাচের ৪০ মিনিটের মাথায় রডরিগেজের ভাসানো বল হেডে পোল্যান্ডের জালে জড়িয়ে কলম্বিয়াকে ১-০ এগিয়ে দেন বার্সার ডিফেন্ডার ইয়েরি মিনা৷ প্রথমার্ধে এই একটি মাত্র গোল হয়৷ দ্বিতীয়ার্ধে ৫ মিনিটের ব্যবধানে আরও দু’টি গোল করে কলম্বিয়া৷

৭০ মিনিটে কুইন্তেরোর বাড়ানো বল ধরে পোল্যান্ড গোলরক্ষকে পরাস্ত করেন ফ্যালকাও৷ বিশ্বকাপে এটি তাঁর প্রথম গোল৷ ৭৫ মিনিটে রডরিগেজের সহায়তাতেই কলম্বিয়ার হয়ে তৃতীয় গোল করেন কুয়াদরাদো৷

দু’ম্যাচে হেরে পোল্যান্ড বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিলেও শেষ ম্যাচে কলম্বিয়া সেনেগালকে হারাতে পারলেই ‘এইচ’ গ্রুপ থেকে নকআউটে জায়গা করে নেবে রডরিগেজরা৷

----
--