চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ, রুবি’র বিরুদ্ধে মেডিক্যাল কাউন্সিলে মৃতার পরিবার

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: উত্তর ২৪ পরগনা জেলার এক নামকরা গায়িকার চিকিৎসারত অবস্থায় মৃত্যু ও তারপর বেসরকারি হাসপাতালের হুমকির জেরে বিতর্ক ছড়িয়েছিল৷ এবার ওই বেসকারী হাসপাতাল ও চিকিৎসকের বিরুদ্ধে রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিলে অভিযোগ দায়ের করল মৃতার পরিবার৷

চলতি বছরের ১১ই অগাষ্ট অরূপা রায় দে নামে উত্তর ২৪পরগণার বনগাঁর বাসিন্দা ও সেখানকার পরিচিত গায়িকা অরুপা রায় দে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে বাইপাসের ধারে একটি বিখ্যাত বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন৷ এই হাসপাতালেই তাঁর অস্ত্রোপচার করা হয় ৷ তার পর থেকে ম্যালিগন্যান্ট ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হন তিনি ৷তার পাশাপাশি সেপ্টিসেমিয়া আক্রান্ত হন ওই গায়িকা ৷ গত শুক্রবার সকালে হাসপাতালেই মৃত্যু হয় তার ৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: ডাকঘরে অব্যবস্থা, প্রতিবাদে অবস্থানে গ্রাহকরা

মৃতার পরিবারের অভিযোগ, অস্ত্রোপচারের পর থেকেই অবস্থার অবনতি হতে থাকে অরুপা রায় দে’র৷ হাসপাতালের গাফিলতিতেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে৷ অরুপাদেবীর মৃত্যুর পর তাঁর পরিবারের সদস্যরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলতে গেলে মুখ্যমন্ত্রীর নাম নিয়ে হুমকি দেযওয়া হয় বলে অভিযোগ৷

এদিন মৃতার পরিবারের তরফে হাসপাতালের গাফিলতি ও মুখ্যমন্ত্রীর নাম করে হুমকির ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিলের দারস্থ হন৷ হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত মোট ১৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়েছে৷ তাঁদের প্রশ্ন, অস্ত্রপচারের পর জ্বর সত্ত্বেও হাসপাতাল কেন ভাল নজর দেয়নি রোগীর স্বাস্থ্যের প্রতি৷ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কীভাবে রোগী মশা বাহিত ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হলেন? কিভাবেই বা সেপ্টিসেমিয়া হল রোগীর?

আরও পড়ুন: প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ফলপ্রকাশ

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলতে চাওয়ায় মুখ্যমন্ত্রীর নাম করেও হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ৷ বিষয়টি বেআইনী দাবি করে স্বাস্থ্য দফতরের এসম্পর্কে অবগত হওয়া প্রয়োজন বলে মনে করে মৃত অরুপা রায় দে’র পরিবার৷
অন্যদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঘটনার পর পরই বিবৃতির মাধ্যমে মৃতার মেডিক্যাল রিপোর্ট প্রকাশ্যে আনে৷ কিন্তু তাদের বিরুদ্ধে ওঠা চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ নিয়ে কোনও উচ্চবাচ্য করেনি৷

Advertisement ---
---
-----