স্টাফ রিপোর্টার, পুরুলিয়া: মনোনয়নের পরও গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে একেবারে হিমশিম অবস্থা পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের। পুরুলিয়া জেলা পরিষদের ৩৮টি আসনের মধ্যে ১৩টি আসনে একাধিক গোঁজ প্রার্থী। দেখে তো একেবারে চোখে কপালে উঠে গিয়েছে তৃণমূলের জেলা নেতৃত্বের। দলের নির্দেশ অমান্য করে এভাবে ১৩টি আসনে একাধিক দলের গোঁজ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা করায় মাথায় হাত তৃণমূলের৷ কীভাবে গোঁজ কাঁটা তুলবে ভেবে পাচ্ছে না দল৷

জেলাপরিষদের আটত্রিশটি আসনের জন্য ১৫৮টি বায়োডাটা জমা পড়েছিল। তাই ওই বিপুল সংখ্যক বায়োডাটা ফাইল বন্দি করে কলকাতায় গিয়েছিলেন দলের জেলা সভাপতি তথা রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো। কিন্তু রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা করেও প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করতে পারেননি।

Advertisement

মন্ত্রী বারবার বলেছেন প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত আছে। কিন্তু সোমবার মনোনয়নের পরে দেখা গেল ১২টি আসনে দলের একের বেশী প্রার্থী। কাকে রাখবে আর কাকে ছাঁটবে বুঝেই পাচ্ছে না দল৷ এ ছবি পঞ্চায়েতের তিন স্তরেই৷ ইতিমধ্যেই ক্ষোভ জন্মাচ্ছে৷ মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো বলেন, “এই প্রার্থীগুলি গোঁজ নয়। যেখানে একাধিক প্রার্থী রয়েছে সেখান থেকে প্রত্যাহার করা হবে।”

দলীয় সূত্রে খবর, ওই ১২টি আসনের মধ্যে রয়েছে বরাবাজার ব্লকের দু’নম্বর জেলাপরিষদ। সেখানে দল জবারানি মাহাতেকে প্রার্থী করলেও ওই আসনে দলের একাধিক সদস্য মনোনয়ন জমা করেছেন। মানবাজার দু’নম্বর ব্লকের চার নম্বর আসনেও দলের প্রার্থী সুমিতা সিং মল্লের জায়গায় মানবাজার দু’নম্বর ব্লকের কার্যকারী সভাপতি দীনবন্ধু হালদারের স্ত্রী শিপ্রা হালদার দাঁড়িয়ে পড়েছেন। বান্দোয়ান ব্লকে পাঁচ নম্বর আসনে বিধায়ক রাজীবলোচনের সরেনের স্ত্রী প্রতিমা সরেন প্রার্থী হলেও এই আসনে দলেরই প্রার্থী হয়েছেন মোট তিন জন।

একইভাবে আড়ষা ব্লকের ন’নম্বর আসনেও দলের একাধিক প্রার্থী রয়েছে। ঝালদা এক নম্বর ব্লকের বারো, তেরো নম্বর আসনেও রয়েছে একাধিক প্রার্থী। একই অবস্থা ঝালদা দু’নম্বর ব্লকের আঠারো নম্বর আসনেও। পুরুলিয়া দু’নম্বর ব্লকের একুশ নম্বর আসনে প্রার্থী হয়েছেন দুই কর্মাধ্যক্ষ হলধর মাহাতো ও পুষ্প বাউরি।

বন ও ভূমি কর্মাধ্যক্ষ হলধর মাহাতোর কুড়ি নম্বর আসনটি তফসিলি জাতির জন্য সংরক্ষিত হওয়ায় তিনি একুশ নম্বর আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা করেন। তবে এই আসনটি জনস্বাস্থ্য ও কারিগরী স্থায়ী সমিতির কর্মাধ্যক্ষ পুষ্প বাউরির।

হুড়া ব্লকের তেইশ নম্বর আসনে কাশীপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সৌমেন বেলথরিয়া কে দল প্রার্থী করলেও এখানকার ব্লক সভাপতি শ্যামনারায়ণ মাহাতোও প্রার্থী হয়ে গিয়েছেন।

এছাড়া এই আসনে আরও একজন দলের হয়ে মনোনয়ন করেছেন। রঘু্নাথপুর দুই ব্লকের ত্রিশ নম্বর আসনে সেখানকার ব্লক সভাপতি বরুন মাহাথা ছাড়াও আরও তিনজন প্রার্থী পদে মনোনয়ন জমা করেছেন।

একইভাবে এই ব্লকের একত্রিশ নম্বর আসনে রঘুনাথপুর দু’নম্বর ব্লকের সভাপতি মনীষা ঘোষ ছাড়া আরও পাঁচজন গোঁজ প্রার্থী রয়েছেন। তাছাড়া পুঞ্চা ব্লকের চব্বিশ নম্বর আসনে দু’জন মনোনয়ন করেছেন। এখানে মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতোর প্রার্থী পুঞ্চা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সিপিএম থেকে আসা আরতি মুদি। অন্যদিকে ওই এলাকা থেকে নেতা–কর্মীদের প্রস্তাবে উঠে আসা বন্দনা মাহাতো মনোনয়ন জমা করেছেন।

----
--