রাজনৈতিক সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে আতঙ্ক ছড়াল ফরাক্কায়

স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: পঞ্চায়েত ভোট মিটেছে বহুদিন৷ কিন্তু মেটেনি ভোট পরবর্তী হিংসা৷ বেশ কয়েকদিন থেকে এলাকায় দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মুর্শিদাবাদের ফারাক্কার বটতলা এলাকা৷ আর সেই উত্তেজনার মাঝে পড়ে রীতিমতো আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ৷

উল্লেখ্য, ফারাক্কার বটতলা এলাকায় বিগত তিন দিন ধরে দুই গোষ্ঠীর বোমাবাজির জেরে আতঙ্কিত হয়ে উঠেছেন সাধারণ মানুষ। এলাকার দখল কে নেবে৷ এই নিয়েই শুরু হয় গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব৷

আরও পড়ুন: ভয়াবহ গাড়ি দুর্ঘটনায় বরাতজোরে বাঁচলেন চালক

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে এমনটাই খবর পাওয়া গিয়েছে৷ অভিযোগ, এলাকায় সন্ধ্যে হলেই চলছে ব্যাপক হারে বোমাবাজি৷ ফলে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন গ্রামের বাসিন্দারা। এমনকি এই আতঙ্কের ফলে ছাত্রছাত্রীরাও স্কুল যেতে পারছে না।

প্রসঙ্গত, ঘটনার সূত্রপাত পঞ্চায়েত ভোটকে কেন্দ্র করে। অভিযোগ, সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে বিজয়ী গ্রাম-পঞ্চায়েতের সদস্য ও কর্মীদের বাড়িঘরের উপর বোমাবাজি করছেন গ্রাম-পঞ্চায়েতে পরাজিত সদস্যের স্বামী৷ নাম হাসিম শেখ৷

এলাকারই বাসিন্দা ও গ্রাম পঞ্চায়েতে পরাজিত সদস্য শুকতারা বিবি৷ স্থানীয়দের দাবি, গ্রাম পঞ্চায়েতে পরাজিত সদস্য শুকতারা বিবি এই বছর গ্রাম পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল প্রতীকে দাঁড়িয়ে ছিলেন। কিন্তু বুথ দখল করে তৃণমূল পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য আজাদ আলি তাঁকে হারিয়ে দিয়েছে৷

আরও পড়ুন: এই নায়িকার জন্যই ‘স্টুডেন্ট অব ইয়ার টু’র হিরো হতে পারেননি ইশান!

এই ঘটনার জেরে হাসিম শেখ ও আজাদ আলি মধ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব শুরু হয়৷ আর তার জেরেই সন্ধ্যে নামলেই বোমাবাজি শুরু হচ্ছে গ্রামে। ফলে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন গ্রামবাসীরা। ঘটনায় ফারাক্কা থানার অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। এদিকে পুলিশ এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার সকালে শুকতারা বিবিকে আটক করে।

এই প্রসঙ্গে আজাদ আলি বলেন, ‘‘পঞ্চায়েত সমিতির ভোটে আমি তৃণমূলের হয়ে জয় লাভ করেছি৷ তাই, গ্রামে সিপিএম-কংগ্রেস জোট বেঁধে আমার উপর আক্রমণ চালাচ্ছে৷ শুধু আমার উপর নয়, আমাদের কর্মীদের উপরও আক্রমণ করেছে এরা৷ এমনকি গোটা গ্রামে বোমাবাজি করে বেড়াচ্ছে এই জোট।’’

আরও পড়ুন: লোকসভা নির্বাচনে আসাদুদ্দিনের বিরুদ্ধে লড়বেন রাজা সিং

পাল্টা হাসিম শেখ বলেন, ‘‘আমাদেরকে ভোটে হারিয়েছে৷ আমাদের উপর কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করে ক্রমশ আক্রমণ করে চলেছে৷ যা যা অভিযোগ করছেন সেগুলি সবই মিথ্যা৷’’ এই বলে অভিযোগ অস্বীকার করেন হাসিম শেখ।

পুলিশের কাছে দুই পক্ষ দুই পক্ষের উপর বোমাবাজির দোষারোপ করছে। বর্তমানে গোটা গ্রাম থমথমে হয়ে গিয়েছে৷ যদিও গ্রামবাসীরা চাইছেন এলাকায় শান্তি ফিরে আসুক। পাশাপাশি, ওই এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে৷

আরও পড়ুন: ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়র লিগে স্টিভ স্মিথ

Advertisement ---
---
-----