নতুন প্রধানমন্ত্রী চায় দেশবাসী: অখিলেশ

কলকাতা:  দেশ বদল চায়। চায় নয়া প্রধানমন্ত্রী। কলকাতায় এসে এমনটাই মন্তব্য করলেন অখিলেশ যাদব। শুধু তাই নয়, তাঁর মন্তব্য বর্তমানে দিল্লিতে যে সরকার রয়েছে সেই সরকারের কর্মকান্ড এবং প্রতিশ্রুতিতে মানুষ ক্লান্ত হয়ে উঠেছে। আর সেজন্যেই গোটা দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়। চায় নতুন একজন প্রধানমন্ত্রী।

রাত পোহালেই তৃণমূলের ব্রিগেড। বিশাল রাজনৈতিক সমাবেশ। ইতিমধ্যে নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা সেই সমাবেশে যোগ দিতে শহরে হাজির একের পর এক রথি-মহারথিরা। ইতিমধ্যে কলকাতায় এসে পৌঁছে গিয়েছে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী দেবেগৌড়া, শরদ পাওয়ার, অখিলেশ যাদবের মতো একাধিক বিজেপি বিরোধী মুখ। আগামীকাল শনিবার কলকাতার ব্রিগেডই হয়ে উঠবে বিজেপি বিরোধীতার এক বিশাল মঞ্চ। ২০১৯ বিজেপি ফিনিশের ডাক দেবেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

দিদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকে শহরে পা রেখেই অখিলেশ আরও বলেন, উত্তরপ্রদেশে জোটের ফলে দেশের সমস্ত বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির মনবল বেড়েছে। মায়াবতি-অখিলেশের জোট ঘোষণার পরেই উত্তরপ্রদেশে একটা সিট পাওয়ার জন্যে বিজেপি সহ সমস্ত শাখা সম্প্রদায়গুলি দফায় দফায় বৈঠক করছে বলে চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন অখিলেশ। একই সঙ্গে তাঁর মন্তব্য, বাংলা থেকেই বদলের ডাক দিল্লিতে যাবে।

অন্যদিকে, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী দেবেগৌড়া মুখ্যমন্ত্রী ভুয়সী প্রসংসা করেন। তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খুবই পরিশ্রমী মানুষ। রাজনীতিতে এমনই পরিশ্রমী মানুষের খুবই প্রয়োজন।