বুদ্ধকে নিয়ে Fake News! চটেছে সিপিএম

দেবময় ঘোষ, কলকাতা: তিনি যখন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন, তাঁর কোন দপ্তরে কী কাজ হচ্ছে বা আমলারা কী করছেন, তা নিয়ে প্রচুর খবর লিখেছেন সাংবাদিকরা৷ তাঁর মস্তিস্কপ্রসুত ‘ব্র্যান্ড বেঙ্গলে’র পক্ষে বিপক্ষে প্রচুর লেখা জমা পড়েছে খবরের কাগজের সম্পাদকীয় বিভাগে৷ নিজের পূর্বসূরী জ্যোতি বসুর মতো সমালোচনাকে বিশেষ গুরুত্বই দিতে চাইতেন না বুদ্ধদেববাবু৷ অন্ধত্বের গ্রাসে চলে যাওয়া বর্ষীয়ান এই কমরেডকে ঘিরে বিভিন্ন বিভ্রান্তিকর খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানালো সিপিএম৷

পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং সিটুর সর্বভারতীয় সহ সভাপতি শ্যামল চক্রবর্তী জানিয়েছেন, এইসব খবরের কোনও ভিত্তি নেই৷ যদিও কে বা কারা এইসব রটাচ্ছে, তা তাঁর জানা নেই৷ শ্যামলবাবুর বক্তব্য, ‘‘ একটা পোষ্ট ফেসবুকে ঘুরছে।পার্টির পয়সা খ‍রচ হবে বলে নাকি বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য চোখ অপারেশন করতে রাজি হচ্ছেন না। এই সব খবর কে রটাচ্ছে। আপনারাও ,অনেকেই verify না করে দিব‍্য মন্তব‍্য করে যাচ্ছেন। শুধু বলে দিই এর কোনো ভিত্তি নেই। চোখের যা চিকিৎসা করা দরকার তা করা হচ্ছে। অপরেশনের কোনও কথাই কোথাও হয়নি।’’

শ্যামলবাবুর এই মন্তব্য পড়ার পড় অনেক পার্টি সমর্থকদেরই সচেতনতা ফিরে এসেছে৷ অনেককেই ফেসবুকে Fake News এর প্রতিবাদ করতে দেখা দিয়েছে৷ প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, চোখের সমস্য এবং অন্যান্য শারীরীক সমস্যার জন্য আর আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে আসেন না বুদ্ধদেববাবু৷ চলতি বছরেই রাজ্য কমিটির বৈঠকে অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে হাজির হয়েছিলেন৷ কিন্তু তাঁর চিকিৎসকরা সেকাজে অনুমতি দেননি৷ তিনি চিকিৎসকদের মতামত অগ্রাহ্য করেন৷

- Advertisement -

বুদ্ধদেববাবুকে নিয়ে মিথ্যা-মুখরোচক খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ায় অত্যন্ত ক্ষুদ্ধ পার্টির রাজ্য নেতৃত্বও৷ এক নেতার কথায়, ‘‘এই বিষয়টা সহ্যসীমার বাইরে চলে যাচ্ছে৷ এটা পার্টিতে আলোচনা হওয়া উচিত৷ বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য সংবাদমাধ্যমের দয়ায় পাত্র নাকি? এইসব বিভ্রান্তিকর খবরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত৷’’

Advertisement ---
---
-----