সঙ্ঘ সেবকদের সৌজন্যেই হয়েছিল শূন্যের আবিষ্কার: শতরূপ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ভারতীয় মতাদর্শ মেনে চলে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সঙ্ঘ । এমনই দাবি সঙ্ঘের সেবকদের। নিয়মিত ভারত মাতার পুজোও করে থাকেন সেবকেরা। আর এই সেবকদের সৌজন্যেই নাকি আবিষ্কার হয়েছিল ‘শূন্য’ সংখ্যার।

ভারতের ৭২ তম স্বাধীনতা দিবসের দিনে এমনই তত্ত্ব উপস্থাপন করেছেন সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষ। এই তত্ত্বের মাধ্যমেই তিনি কটাক্ষ করেছেন নিজেদের ‘দেশপ্রেমিক’ বলে দাবি করা সঙ্ঘ সেবকদের।

আরও পড়ুন- অটল নেই, শোকপ্রকাশ পলিটব্যুরোর

- Advertisement -

সঙ্ঘ সেবকদের দেশপ্রেম এবং ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে তাঁদের অবদান থেকেই নাকি এসেছে শূন্য। এমনই দাবি নবীন সিপিএম নেতার। যদিও শূন্যের আবিষ্কারের পিছনে গণিতবিদ আর্যভট্টের অবদানের কথা তিনি উড়িয়ে দেননি শতরূপ। আর্যভট্টের মাধ্যমেই যে গণিতের জগতে বিপ্লব ঘটেছিল তাও বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি। কিন্তু সেই বিপ্লবের পিছনে যে সংঘের অবদান ছিল তা তুলে ধরেছেন তিনি।

 

বুধবার অর্থাৎ স্বাধীনতা দিবসের দিন রাতের দিকে এই বিষয়ে ট্যুইট করেন শতরূপ ঘোষ। তিনি লেখেন, “কতজন সঙ্ঘ সেবক ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে অংশ নিয়েছিলেন? একসময় তা গুনতে বলা হয়েছিল আর্যভট্টকে। ঠিক সেই সময়েই আসে ঐতিহাসিক মুহূর্ত, আবিষ্কার হয় ‘শূন্য’ সংখ্যার।”

পঞ্চম শতকে জন্ম নেওয়া আর্যভট্ট ভারতের অন্যতম শ্রেষ্ঠ গণিতবিদ। তাঁর হাত ধরেই দশমিক সংখ্যা এবং শূন্য। এছাড়াও বীজগণিত, ত্রিকোণমিতি এবং পাইয়ের মান আবিষ্কার হয়েছে তাঁর হাতেই। একই সঙ্গে জ্যোতির্বিদ্যায়ও আর্যভট্টের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। ষষ্ঠ শতকের মাঝামাঝি মৃত্যু হয় ভারতের এই মহান গণিতবিদের।

সঙ্ঘের আত্মপ্রকাশ ঘটে বিংশ শতকে। খুব স্বাভাবিকভাবেই আর্যভট্টের সঙ্গে যে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবকদের কোনও সম্পর্ক নেই তা বলাই বাহুল্য। এই বিষয়ে শতরূপ ঘোষ বলেছেন, “পুরোটাই রাজনৈতিক কটাক্ষ। মজা করে লেখা।”

Advertisement ---
-----