আবাসনের দাম কমাতে রাজি নয় ক্রেডাই

কলকাতা:রিজার্ভ ব্যাংকের গর্ভনর রঘুরাম রাজনের যতই বিক্রি বাড়াতে আবাসনের দাম কমানোর কথা বলুক না কেন আবাসন নির্মাতা সংস্থাগুলির সংগঠন ক্রেডাই সে পথে হাঁটতে রাজি নয়৷৷ দেশে অবিক্রিত আবাসানের সংখ্যা কমাতে ইতিমধ্যেই আবাসন নির্মাণ সংস্থাগুলিকে সুদ কমার উপর নির্ভর না করে আবাসনের দাম কমানোর পরামর্শ দিয়েছিলেন রাজন৷ আর তার পরিপেক্ষিতে ক্রেডাই জানিয়ে দিল দাম কমানো সম্ভব নয়৷ বরং পাল্টা তাদের দাবি আবাসনের চাহিদা বাড়াতে কমানো হোক বিভিন্ন কর এবং গৃহঋণের উপর সুদের হার৷ ক্রেডাইয়ের কর্তাদের মতে , এই ক্ষেত্র নিয়ে আরবিআই গর্ভনরের উদ্বেগকে তাঁরা সম্মান করেন৷ কিন্ত্ত একইসঙ্গে মনে করান, সারা দেশে নির্মাণ সংস্থাগুলি ইতিমধ্যেই আবাসনের দাম যথেষ্ট পরিমাণে কমিয়েছে৷ এখন দাম যদি আরও কমাতে হয় , তা হলে সেটা আবাসন নির্মাতাদের নিজেদের পকেট থেকে দিতে হবে৷ অর্থাৎ এই শিল্পই শেষ হয়ে যাবে৷ বরং কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্য সরকারগুলির উচিত করের হার কমানো এবং অনুমোদন প্রক্রিয়াকে আরও সরল করা যাতে সম্পত্তির দাম কমে এবং সাধারণ মানুষের উপকার হয়৷ একই সঙ্গে এই মুহূর্তে প্রয়োজন গৃহঋণেও সুদের হার কমানোর দাবি তোলা হয়েছে৷
প্রসঙ্গত, সারা দেশে গত দু’তিন বছর ধরে আবাসন ক্ষেত্রে মন্দা চলছে এবং এর ফলে একটি প্রকল্পের নির্মাণ শেষ হতে গড়ে প্রায় ৬ বছর সময় লেগে যাচ্ছে৷ প্রপার্টি কনসালট্যান্ট নাইট ফ্র্যাঙ্ক ইন্ডিয়া -র একটি রিপোর্ট বলেছিল, দেশের আটটি প্রধান শহরে সাত লক্ষেরও বেশি ফ্ল্যাট ক্রেতার অভাবে তৈরি হয়ে পড়ে রয়েছে৷ ফলে দিল্লি -এনসিআর , মুম্বই , বেঙ্গালুরু, পুণে , কলকাতা , চেন্নাই , হায়দরাবাদ এবং আমেদাবাদে এই সমস্ত অবিক্রিত ফ্ল্যাট বিক্রি হতে অন্তত আরও তিন বছর সময় লাগবে বলে ওই রিপোর্টে জানিয়েছেন৷

Advertisement
---