শ্রীনগর: সেনা-পুলিশ ও জনতার খণ্ডযুদ্ধে পাথর ছোড়া নিত্যদিনের৷ উপত্যকায় প্রতিদিন যে গতিতে পাথরযুদ্ধ বাড়ছে, তা সামলাতে দিশেহারা কেন্দ্রীয় বাহিনী৷ বিশেষ করে মহিলা বিক্ষোভকারীদের রুখতে বেগ পেতে হয় সেনাদের৷ সেই কারণেই বাহিনীতে মহিলাদের বিশেষ প্রশিক্ষণ দিচ্ছে CRPF৷

পাথর ছোড়া নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে এই মহিলা সিআরপিএফ বাহিনী৷ সেনাদের মতই প্রশিক্ষণ পাবে তাঁরা৷ কাশ্মীরের সিআরপিএফ ক্যাম্পগুলিতে চলছে প্রশিক্ষণ৷

আরও পড়ুন: বর্ষা-বন্যায় বিপর্যস্ত কাশ্মীরে স্থগিত অমরনাথ যাত্রা

মহিলা বাহিনীর চোখে কাপড় বেঁধে তাঁদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে সিআরপিএফ৷ অনেকবারই সেনার বিরুদ্ধে বিক্ষোভে নেমে উপত্যকায় পাথর ছুড়তে দেখা গেছে কয়েকশো মহিলাকে৷ যাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে পারেনি কেন্দ্রীয় বাহিনী৷ সেই পাথর ছোড়া বন্ধ করাই মহিলা সিআরপিএফ বাহিনীর কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করা হচ্ছে৷

রাতের অন্ধকারেও মহিলা সিআরপিএফকে যে কোনও জায়গায় যেতে হতে পারে৷ সেইভাবেই তাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে বলে জানাচ্ছেন সিআরপিএফ আধিকারিক৷ ঘটনাস্থলেই অস্ত্র বানাতে পারবে এই বাহিনী, জঙ্গল অভিযানেও সক্ষম হবে তাঁরা৷ সব মিলিয়ে কয়েক মাসের কঠিন প্রশিক্ষণের মধ্যে থাকবেন বিশেষ মহিলা কমান্ডোরা৷

আরও পড়ুন: উপত্যকায় জারি বন্যা সতর্কতা

উত্তেজনার উপত্যকায় পাথর ছোড়ার ঘটনা প্রায় প্রতিদিনের৷ আর তার জেরে অনেকসময় পর্যটকদেরও মৃত্যু ঘটছে৷ চলতি বছরের ৭ মে কাশ্মীরের নারবালে বিক্ষোভের মুখে পড়েন চেন্নাইয়ে পর্যটক আর থিরুমানি৷ পাথরের আঘাতে অবশেষে মৃত্যু হয় ২২ বছরের ওই তরুণ পর্যটকের৷

২ মে-সোপিয়ানে একটি স্কুল বাস লক্ষ্য করে পাথর ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা৷ ঘটনায় আহত হন ৭ পর্যটক৷ ৩০ এপ্রিলও পর্যটকদের বাস লক্ষ্য করে ছোড়া হয় পাথর৷ এইভাবেই প্রতিদিন ভয়ানক পরিস্থিতির সম্মুখীন হচ্ছেন পর্যটক থেকে সাধারণ মানুষ৷ এবার তাই পাথরযুদ্ধ রুখতে তৈরি হচ্ছেন মহিলা সিআরপিএফ৷ কাশ্মীরের বিভিন্ন অঞ্চলে জঙ্গি বিরোধী অভিযান চালাচ্ছে সেনা৷

আরও পড়ুন: গুজরাত,মহারাষ্ট্রে ধেয়ে আসছে সাইক্লোন

কাশ্মীরের অলি গলিতে বিক্ষোভের আঁচও অব্যাহত৷ জ্বলন্ত উপত্যকায় তার মধ্যেই ভূস্বর্গের আঁচ পেতে চলে যান কয়েক হাজার পর্যটক৷ তাদের নিরাপত্তার দায়িত্ব বর্তায় সেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপরই৷ আর সেই কারণেই বাহিনীতে সেনা বাড়ানো শুধু নয়, মহিলা সেনা প্রশিক্ষণের উপরও জোর দিল সীআরপিএফ৷

----
--