প্রয়াত ভারতবন্ধু ফিদেল কাস্ত্রো

হাভানা: হয় সমাজতন্ত্র নয় মৃত্যু৷ কিউবা কমিউনিস্ট পার্টির এটাই মূল স্লোগান৷ সেই কথাতেই জীবনভর বিশ্বাস রেখেছিলেন৷ আমৃত্যু স্বাধীনচেতা মনোভাব৷ নাকের ডগায় থাকা প্রবল শক্তিধর রাষ্ট্র আমেরিকা পর্যন্ত থমকে গিয়েছিল৷ আর দ্বীপরাষ্ট্র কিউবা-তাঁরই নেতৃত্বে একনায়ক বাতিস্তা সরকারের পতন ঘটিয়ে ক্রমাগত লড়াই চালিয়ে গিয়েছে৷ বিপ্লবের সেই মহাকাব্যটি লিখেছিলেন ফিদেল-চে ও তাঁর সহযোগীরা৷ অভ্যুত্থানে পতন হয়েছিল বাতিস্তা সরকারের৷  সেই যুদ্ধের এক কাণ্ডারি চে গোভারা আগেই প্রয়াত(খুন করা হয়েছিল তাঁকে)৷ অন্যজন ফিদেল কাস্ত্রোর প্রয়াণ হল৷ মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯০৷  ছিলেন মনে প্রাণে ভারত বন্ধু৷

কিউবার রাষ্ট্রনায়ক, আন্তর্জাতিক বিপ্লবী ফিদেল কাস্ত্রোর প্রয়াণে শোকাতুর আন্তর্জাতিক মহল৷

অভ্যুত্থানে মার্কিন মদতপুষ্ট সরকার ফেলে দিয়ে সমাজতন্ত্র গঠনের পর থেকেই অর্থনৈতিক অবরোধে একঘরে হয়েছিল কিউবা৷   টানা ছয় দশক সেই অবরোধের মধ্যেও প্রবল লড়াই চালিয়েছে কিউবা৷ নেতৃত্বে ফিদেল৷

ফল ? চিকিৎসাবিজ্ঞানে বিপ্লব৷ সমাজতান্ত্রিক সমাজ গঠনে সাফল্য৷ দৃঢ় মানসিকতা৷ সবমিলে কিউবা ছোট্ট দৈত্যের মতো পেশী ফুলিয়ে বিশালদেহী আমেরিকার সামনে মাথা তুলে রয়েছে৷ কিউবার স্বাধীনতা সংগ্রাম বিশ্ব ইতিহাসে এক বর্ণোজ্জ্বল অধ্যায়৷  পঞ্চাশের দশকে সেই বিপ্লব পরে রক্তে মজ্জায় নিয়ে নিয়েছেন কিউবানরা৷ চিনের মতো লোক দেখানো সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠা নয়, বরং পূর্বতন সোভিয়েত রাশিয়ার অনুকরণে রাষ্ট্র কাঠামো তৈরি করতে চেয়েছেন৷  তাঁরই আমলে মার্কিন শক্তিকে চূর্ণ করেছে ভিয়েতনাম৷ উত্থান হয়েছে চিনের৷ আবার ভেঙে গিয়েছে সোভিয়েত রাশিয়া৷ বিশ্ব রাজনীতির টানা উত্থান-পতনের মধ্যেই সমাজতান্ত্রিক দেশ হিসেবে কিউবা লড়াই চালিয়ে গিয়েছে৷

মানতে বাধ্য হয়েছে আমেরিকা৷ দীর্ঘ অবরোধ তুলে নেওয়ার পক্ষে সওয়াল করেছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা৷ হাভানা-ওয়াশিংটন কূটনৈতিক সম্পর্ক আবার গতি পাচ্ছে৷ এসবের মধ্যেই তিনি ছিলেন৷ প্রেসিডেন্ট পদ থেকে অব্যাহতি নেওয়ার পর সময় কাটত খবরের কাগজ, আন্তর্জাতিক কমিউনিস্ট আন্দোলনের ইতিহাস পড়ে৷ আর দেখতেন খেলা৷

ক্রীড়ামোদী তিনি৷ দেশকে স্বাস্থ্য সম্পদে ভরিয়ে দিতে কোনও খামতি করেননি৷ তাঁর আমলেই আন্তর্জাতিক বক্সিং প্রতিযোগিতায় কিউবার অসামান্য সফলতা এসেছে৷ দুনিয়ার শ্রেষ্ঠ বক্সিং জগত আমেরিকাও তাতে ঈর্ষা করত৷ নিজে ক্রীড়া প্রেমী৷ তবে মুখে জ্বলত চুরুট৷ বিখ্যাত হাভানা চুরুটেই তিনি ছিলেন সর্বাধিক লোকপ্রিয়৷ স্বাস্থ্যের কারণে সেই চুরুট ছেড়ে দিয়েছিলেন৷ নীলরঙা স্পোর্টস স্যুটেই তাঁকে দেখা গিয়েছিল সর্বশেষ কিউবান কমিউনিস্ট পার্টির অধিবেশনে৷ কিউবার দায়িত্ব দিয়ে গিয়েছেন ভাই তথা আন্তর্জাতিক কমিউনিস্ট নেতা রাহুল কাস্ত্রোকে৷

শেষ হয়েছে কিউবার বিপ্লবের সেই অধ্যায়৷ যার অবিরাম নক্ষত্র হয়েই থাকবেন ফিদেল কাস্ত্রো৷

 

Advertisement
----
-----