কলকাতা: বঙ্গোপসাগরের উপর তৈরি হওয়া এই বছরের ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় তিতলি ক্রমশ শক্তি হারাচ্ছে৷ জানিয়েছে মৌসম ভবন৷ আর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে সেটির শক্তিক্ষয় হবে৷ শুক্রবার সকালের মধ্যে সেটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে৷ মৌসম ভবনের পূর্বাভাস ওড়িশাকে স্বস্তি দিলেও চিন্তায় ফেলে দিয়েছে বাংলাকে৷ কেননা নিম্নচাপের অভিমুখ এখন বাংলার দিকে৷ কটক হয়ে সেটি বাংলায় ঢুকে পড়বে৷ ফলে পুজোয় এবার রোদ ঝলমলে আকাশ নয়৷ দেখা দেবে তিতলির ভ্রুকুটি৷

বৃহস্পতিবার ভোর রাত থেকে ওড়িশায় দাপট দেখাতে শুরু করেছে সাইক্লোন তিতলি৷ সকাল থেকে কার্যত লণ্ডভণ্ড ওড়িশার উপকূলবর্তী এলাকা৷ সেরকম মারাত্মক না হলেও প্রভাব পড়েছে অন্ধ্রপ্রদেশেও৷ মৌসমভবনের তরফে তখন জানানো হয়, অন্ধ্রপ্রদেশে তট এলাকায় দাপট দেখিয়ে ওড়িশার গোপালপুরের দিকে ধেয়ে যায় যায় তিতলি৷ সকালের দিকে মারকুটে মেজাজে ব্যাট করে ওড়িশার পাঁচটি জেলাতে৷ কিন্তু এখন জানা যাচ্ছে এই মারকুটে মেজাজ জারি থাকবে আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা৷ মূল ভূখণ্ডে প্রবেশের তিন-চার ঘণ্টা পরই সেটি শক্তি হারাতে শুরু করবে৷

Advertisement

তারপরই সেটি বাঁক নিয়ে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে প্রবেশ করবে৷ আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী ৪৮ ঘণ্টা রাজ্যের একাধিক জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে৷ এমনিতেই তিতলির প্রভাবে বাংলায় বুধবার থেকে আকাশের মুখ ভার৷ হয়েছে মাঝারি বৃষ্টিপাতও৷ সেই বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী, গোটা রাজ্যেই ডানা মেলবে তিতলি৷ বৃহস্পতিবার দুই ২৪ পরগণা, দুই মেদিনীপুর, আগামীকাল শুক্রবার দুই ২৪ পরগণা ছাড়াও, বাঁকুড়া, বীরভূম, হাওড়া, হুগলী, মূর্শিদাবাদ, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া এবং শনিবার চর্তুথীর দিনও এই সব জেলাতে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে৷

----
--