ট্রেনের ছাদে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত মানসিক ভারসাম্যহীন

স্টাফ রিপোর্টার, চুঁচুড়া: ট্রেনের প্যান্টোগ্রাফে জড়িয়ে মৃত্যু হল এক মহিলার৷ শুক্রবার সকালে ডাউন ব্যান্ডেল লোকালে দুর্ঘটনাটি ঘটে৷ ট্রেনের ছাদে উঠে পড়েন মানসিক ভারসাম্যহীন এক মহিলা৷ এরপরই চুঁচুড়া স্টেশনে ওভারহেডের তারে তড়িদাহত হয়ে মৃত্যু হয় তাঁর৷

চুঁচুড়া স্টেশনের ২ নম্বর প্ল্যাটফর্মে এই ঘটনা ঘটে৷ ঘটনার জেরে এই লাইনে বেশ কিছুক্ষণ ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল৷ স্থানীয় সূত্রে খবর, ট্রেনটি প্ল্যাটফর্মে ঢুকতেই ট্রেনের ছাদে উঠে পড়েন ওই মহিলা৷ সঙ্গে সঙ্গেই ভয়াবহ আওয়াজ শোনা যায় স্টেশনচত্বরে৷

ততক্ষণে প্যান্টোগ্রাফের তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছে ওই মহিলার৷ এই ঘটনার পরই রেলের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে৷ সকলের নজর এড়িয়ে কীভাবে একজন মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলা ট্রেনের ছাদে উঠে পড়লেন তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: সেনার বিরুদ্ধে মন্তব্যের জের, আজাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা

যদিও প্রত্যক্ষদর্শীদের একাংশ জানান, জানলা বেয়ে ট্রেনের ছাদে উঠে পড়েছিলেন মানসিক ভারসাম্যহীন ওই মহিলা৷ হাই ভোল্টেজ বিদ্যুতের তারে হাত লাগতেই ভয়াবহ দুর্ঘটনাটি ঘটে যায়৷ এদিকে ঘটনার পর প্রায় ঘণ্টাখানেক কেটে গেলেও মৃতদেহ নামাতে পারেনি রেল পুলিশ৷ এমনটাই অভিযোগ করেছেন স্টেশনের যাত্রীরা৷

স্থানীয়রা জানান, চুঁচুড়া স্টেশনে মাঝেমধ্যেই ঘুরে বেড়াতেন ওই মহিলা৷ মানসিকভাবে তিনি যে সুস্থ ছিলেন না তা এলাকার অনেকেরই জানা৷ এদিন সকাল ৮টা ৩৫মিনিট নাগাদ ব্যান্ডেল থেকে ছাড়ে ডাউন ব্যান্ডেল-হাওড়া লোকাল৷ চুঁচুড়া স্টেশনে ট্রেন ঢুকতেই নিত্যযাত্রীদের ভিড়৷ ঠেলাঠেলি করে ট্রেনে উঠছেন যাত্রীরা৷

আরও পড়ুন: স্বামীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের জেরে অত্যাচার, আত্মঘাতী স্ত্রী

এরইমধ্যে আচমকা বিকট আওয়াজ শোনা যায় স্টেশনচত্বরে৷ মুহূর্তে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন যাত্রীরা৷ হঠাৎই নজরে আসে ট্রেনটির প্রথম কামরার বগির উপর ধোঁয়া৷ হইহই পড়ে যায়৷ যাত্রীরা দেখেন বগির ছাদে একজন তড়িদাহত হয়ে ঝুলে রয়েছে৷

মৃতদেহ উদ্ধারের জন্য খবর দেওয়া হয় দমকলে৷ আসে ব্যান্ডেল জিআরপি৷ এগারোটা নাগাদ ট্রেন চলাচল ফের স্বাভাবিক হয়৷ উদ্ধারকাজে বেশখানিকটা বিলম্ব হয়েছে বলে অভিযোগ করেন স্টেশনচত্বরের বেশ কয়েকজন যাত্রী৷ এদিকে এই দুর্ঘটনার জেরে একের পর এক ট্রেন দাঁড়িয়ে পড়ে ব্যান্ডেল হাওড়া শাখায়৷ অফিসটাইমে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় যাত্রীদের৷

Advertisement ---
-----