দেল পোর্তো ‘কাঁটায়’ বিদ্ধ ফেডেরার

নিউইয়র্ক: টেনিসের ইতিহাসে সর্বকালের সেরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা বলা তাদের লডা়ইকে৷ মোট ৩৭বার মুখোমুখি হয়েছেন রজার-রাফা৷ কিন্তু ফ্লাশিং মেডোয়া কখনও সামনা সামনি হননি তাঁরা৷ মনে করা হচ্ছিল এবার সেই লড়াই দেখতে পাবে মার্কিন দর্শকরা৷ কিন্তু তাদের সেই আশা অপূর্ণই রয়ে গেল৷ কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে গেলেন ফেডেরার৷ আর্জেন্তিনার হুয়ান মার্টিন দেল পোর্তোর বিরুদ্ধে ৫-৭, ৬-৩, ৬-৬ (১০-৮), ৬-৪ সেটে হেরে গেলেন ‘ফেডএক্স’৷

আরও পড়ুন: বিশ্বের ১১৬ নম্বরের কাছে হারলেন ফেডেরার

এদিন ওপেনিং সেট থেকেই ফেডেরারকে ছন্দহীন লাগছিল৷ প্রথম সেট ৭-৫ জিতে নেওয়ার পরই ইন্দ্রপতনের আশঙ্কা করছিলেন অনেকে৷ তাদের সেই আশঙ্কাই যে সত্যি হবে কে জানতো! দ্বিতীয় সেটে ম্যাচে ফেরেন সুইস মায়েস্ত্রো৷ কিন্ত ‘ঘরের কোর্টে’ খেলা দেল পোর্তো এদিন বেশিই উজ্জীবিত ছিলেন৷ তৃতীয় সেট ট্রাইবেকারে যাওয়ার পর যেভাবে ম্যাচ বের করলেন তা এককথায় অনবদ্য৷ চতুর্থ সেটেও সমানে সমানে লড়াই চলছিল দুই তারকার৷ পাঁচ নম্বর গেমে ফেডেরারের সার্ভিস ব্রেক করেন দেল পোর্তো৷ সেখান থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেননি সুইস মহাতারকা৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: ফেডেরার-নাদাল যুগের শেষের শুরু!

ম্যাচ জেতার পর দেল পোর্তো বলেন,‘মনে হয় টুর্নামেন্টের সেরা ম্যাচটা খেলে ফেললাম৷ ম্যাচে আজ সব কিছুই ঠিকঠাক করেছি৷ আমার সার্ভ বেশ ভাল ছিল৷ ফোরহ্যান্ড যত জোরে মারতে পারি মেরেছি৷ বিশ্বাসই হচ্ছে না আমি আবার সেমি-ফাইনাল খেলবো৷ দর্শকদের ধন্যবাদ আমাকে সাপোর্ট করার জন্য৷ এটা আমার ঘরের কোর্ট৷ আশা করবো রাফার বিরুদ্ধে সেমি ফাইনালেও আপনারা এই ভাবে আমাকে সমর্থন করবেন৷’

আরও পড়ুন: পাঁচ সেটের চ্যালেঞ্জ টপকালেন ফেডেরার

অন্যদিকে ম্যাচ হারার পর স্বভাবতই বিমর্ষ লাগছিল রজারকে৷ তবে দেল পোর্তোর ভুয়সী প্রশংসা করে ফেডেরার বলেন,‘হুয়ান আজ যা খেলেছে তাতে মনে হয় ওর হাতেই কাপ উঠবে৷ রাফাকে হারানোর ওর সামনে বিরাট সুযোগ রয়েছে৷’ ২০০৯ হট ফেভারিট রজারকে হারিয়ে টেনিস বিশ্বকে চমকে দিয়েছিলেন দেল পোর্তো৷ তারপর চোট আঘাতে টেনিস থেকে হারিয়েই গিয়েছিলেন আর্জেন্তিনিয় তারকা৷ এ দিন আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে ২০০৯ ফাইনালের ফর্মই যেন ফিরিয়ে আনলেন দেল পোর্তো৷

আরও পড়ুন: জয়ী ফেডেরার,অপ্রত্যাশিত হার নাদালের

ফেডেরার হেরে গেলেও স্ট্রেট সেটে(৬-১,৬-২,৬-২) জয় পয়েছেন নাদাল৷ বছর ১৯ আন্দ্রে রুবলভকে হারাতে খুব একটা কসরত করতে হয়নি বিশ্বের এক নম্বরকে৷ এক ঘন্টা ৩৬ মিনিটেই রুশ প্রতিদ্বন্দীকে উড়িয়ে দেন স্প্যানিশ মহাতারকা৷ ম্যাচের পর নাদাল বলেন,‘ কোয়ার্টার ফাইনালে ভালোই খেললাম৷ আন্দ্রে প্রথমবার কোয়ার্টার ফাইনালে খেলছে৷ সেই জন্য বেশ কিছু ভূলও করেছে৷’

Advertisement ---
---
-----