ক্যালিফোর্ণিয়া: অকালি দল নেতা ও দিল্লি শিখ গুরুদ্বারের কমিটির সভাপতি আক্রান্ত৷ অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীদের হাতে রীতিমতো মারধর খেতে হল মনজিত সিংকে৷ শনিবার ক্যালিফোর্ণিয়ার যুবা সিটি গুরুদ্বারের সামনে এই ঘটনা ঘটে৷

আরও পড়ুন- প্রার্থনার জন্য কেরলে গির্জা পরিষ্কার করছেন শিখরা

Advertisement

হামলাকারীরা প্রথমে মনজিতকে মাটিতে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়৷ তারপর চলতে থাকে মারধর৷ পালিয়ে যাওয়ার আগে মনজিত সিংয়ের মুখে কালি লাগিয়ে দেওয়া হয় বলে সূত্রের খবর৷ এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত সন্দেহে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷

তিনি জানান, প্রায় ২০-২৫ জন ব্যক্তি তাঁর ওপর হামলা চালিয়েছে৷ তাদের কাউকেই তিনি চিনতে পারেননি ৷ গুরুদ্বারে প্রার্থনা করতে গিয়েছিলেন৷ সেখান থেকে বেরোতেই হামলা চলে তাঁর ওপর৷ তবে সংঘর্ষ এড়াতে তাঁর সঙ্গে থাকা লোকেদের প্রতি আক্রমণ করতে দেননি তিনি বলে দাবি মনজিতের৷ তিনি বলেন গুরুদ্বারের শান্তি রক্ষা করাই প্রধান কর্তব্য ছিল আমার৷

আরও পড়ুন- ২৩ বছর ধরে মোদীকে রাখি পরান এই পাকিস্তানি বোন

মনজিত বলেছেন এরআগেও তাঁর ওপর হামলা চলেছে৷ প্রথমে নিউ ইয়র্কে এবার ক্যালিফোর্ণিয়ায়৷ তবে তিনি ভীত নন৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এভাবে একজন শিখ ব্যক্তির ওপর হামলা চালানোর কড়া নিন্দা করেছেন দেশের শিখ সম্প্রদায়৷ শিরোমণি গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটির সভাপতি গোবিন্দ সিং লঙ্গোয়াল বলেন, গোটা ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক৷ সেদেশে বার বার শিখদের ওপর হামলা চালানোর ঘটনা ঘটছে৷ এটা বন্ধ হওয়া দরকার৷ আতঙ্ক ছড়ানোর জন্যই এই ঘটনা ঘটানো হচ্ছে৷ প্রশাসনকে আরও সক্রিয় হতে হবে বলে দাবি তুলেছেন তাঁরা৷

আরও পড়ুন- বিজেপির ‘অটল রাজনীতি’র জবাব দিলেন এই জাতীয় নেতা

কেন্দ্রীয় খাদ্য প্রক্রিয়াকরণমন্ত্রী হরসিমরত্‍ কউর বাদল এবং তাঁর স্বামী, শিরোমণি অকালি দলের নেতা সুখবীর সিং বাদল অবশ্য এই ঘটনায় আইএসআইয়ের হাত রয়েছে বলে দাবি করেছেন৷ তাঁদের মত এর পিছনে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই জড়িয়ে রয়েছে৷ তবে এভাবে শিখদের দমানো যাবে না বলে জানিয়েছেন তাঁরা৷

বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সাহায্য চেয়ে তাঁকে গোটা ঘটনা জানিয়েছেন হরসিমরত্‍ কউর বাদল৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভারতীয় দূতাবাসের পক্ষ থেকে সব ধরণের সহযোগিতা করা হচ্ছে বলে খবর৷

আরও পড়ুন- জঙ্গিদলে যোগ দেওয়ার প্রবণতা এই বছরেই সবথেকে বেশি

প্রসঙ্গত, গত সোমবারই নিউ ইয়র্কের একটি টিভি স্টুডিওতে মনজিত এবং তাঁর পরিবারের উপর হামলা করেছিল একদল দুষ্কৃতী। তার প্রেক্ষিতে সাহায্য চেয়ে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের কাছে আবেদনও করেছিলেন মনজিত৷

----
--