ফাইল ছবি

কলকাতা : রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য ১০০ শতাংশ ক্যাশলেস স্বাস্থ্য পরিষেবা এবং আরও ১৫ শতাংশ অন্তরবর্তিকালীন ভাতা ষষ্ঠ বেতন কমিশন কার্যত মেনে নিয়েছে, দাবি করেছেন রাজ্য সরকারি কর্মচারি পরিষদ’৷

সোমবার রাজ্য সরকারি কর্মচারি পরিষদের একটি দল বেতন কমিশনের চেয়ারম্যান অভিরূপ সরকারের সঙ্গে দেখা করেন ৷ অনতি বিলম্বে বেতন কমিশনের সুপারিশ সমূহের প্রকাশ করতে হবে বলে তাঁরা দাবিও জানান৷

কথা প্রসঙ্গে, অভিরূপবাবুকে বলেন, একটি সুনির্দিষ্ট ডি এ – পলিসি, ১০০ শতাংশ ক্যাশলেস স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদান করতে রাজ্য সরকারকে প্রচুর কাঠখড় পোড়াতে হবে না ৷ অন্যান্য রাজ্যগুলির সঙ্গে যদিও পশ্চিমবঙ্গের বেতন কাঠামোর তারতম্য অনেকখানি, তবুও ইচ্ছা থাকলেই ১৫ শতাংশ অন্তরবর্তিকালীন ভাতা সরকার দিতেই পারে ৷ প্রসঙ্গত, ১০ শতাংশ অন্তরবর্তিকালীন ভাতা কর্মীরা ইতিমধ্যেই পাচ্ছেন ৷ আরও ১৫ শতাংশ হাতে এলে ২৫ শতাংশ পাওয়া যাবে ৷ রাজ্য সরকারি কর্মচারি পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশীষ শীলের মতে, এই বাজারে তাও বা কম কী ?

প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য, রাজ্য সরকার ২০১৫ সালের ২৭ শে নভেম্বর ষষ্ঠ বেতন কমিশন ৬ মাসের মেয়াদে গঠন করে ৷ পরবর্তীকালে আরও তিনবার বেতন কমিশনের মেয়াদ বাড়িয়ে তিন বছর করা হয় ৷ শেষ নির্দেশ অনুযায়ী বেতন কমিশনের মেয়াদ ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৮ ৷ পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশীষবাবুর অভিযোগ, এত দীর্ঘ বেতন কমিশনের মেয়াদ এরাজ্যে অতীতে ছিল না ৷ অন্য রাজ্যেও এর নজির নেই ৷

ভারতবর্ষের বেশিরভাগ রাজ্যে ইতিমধ্যেই সপ্তম বেতন কমিশনের সুপারিশ মোতাবেক কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারিদের মতো সংশোধিত বেতন কাঠামো চালু করে দেওয়া হয়েছে ৷ দক্ষিণ ভারতের কেরালা, অন্ধপ্রদেশ এবং কর্ণাটকে সংশোধিত বেতন কাঠামোর হার কেন্দ্রীয় সরকারের থেকেও বেশি ৷ ওইসহ রাজ্যগুলিতে কমিশন এক বছরের কম সময়ে সুপারিশ সমূহের প্রকাশ করেছিল ৷ পশ্চিমবঙ্গের কর্মচারিদের সংখ্যা ওই সব রাজ্যগুলির থেকে বেশি নয় ৷ কর্মীদের আভিযোগ, রাজ্য সরকারি কর্মীদের হাল সব থেকে খারাপ ৷

জিনিসের দাম বেড়ে গেলে কাজে আসে মহার্ঘভাতা ৷ রাজ্য সরকারি কর্মচারিদের ৪২ শতাংশ মহার্ঘভাতা বাকি ৷ সংশোধিত বেতন এবং বকেয়া মহার্ঘ ভাতা না দেওয়ার ফলে একজন গ্রুপ-ডি অবং গ্রুপ-সি পহে কর্মরত কর্মী ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাস থেকে ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাস পর্যন্ত ১ লক্ষ ১৪ হাজার ৪০৪ এবং ১ লক্ষ ৩৮ হাজার ৫৮১ টাকা কম পাচ্ছেন ৷ যারা দীর্ঘদিন ঘরে কর্মরত আছেন, তাদের আরও সঙ্গিন অবস্থা ৷ ‘আমরা অভিরূপবাবুকে বলেছি, খালি হতে ফিরে যাব না ৷ ক্যাশলেস স্বাস্থ্য পরিষেবা এবং আরও ১৫ শতাংশ অন্তরবর্তিকালীন ভাতা দেওয়ার প্রস্তাব আপনি সরকারকে দিতেই পারেন ৷ উনি তা মেনে নিয়েছেন,’ দাবি দেবাশীষবাবুর ৷ পরিষদই দু’বার কমিশনে এসেছে ৷ রাজ্য সরকারি কর্মীদের কথা অন্য সংগঠনগুলি এতটা চিন্তা করে না, আরও জানান পরিষদের আহ্বায়ক ৷

----
--