নয়াদিল্লি: বিমুদ্রাকরণ নিয়ে ফের মুখ খুললেন প্রাক্তন আরবিআই প্রধান রঘুরাম রাজন৷ ৫০০ ও ১০০০ টাকা নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত মোটেই ভালো ছিল না বলে মন্তব্য করেন তিনি৷ বলেন, ‘‘নোট বাতিলের সিদ্ধান্তকে ঠিকমতো কার্যকর করা যায়নি৷ বিমুদ্রাকরণের পর ৮৭.৫ শতাংশ নোট ফিরে এসেছে৷ সরকারকে জানিয়েছিলাম যে এই সিদ্ধান্ত মোটেই কোন কাজে আসবে না৷’’ রঘুরাম রাজনের এই স্বীকারোক্তির পর স্বাভাবিকভাবেই অস্বস্তিতে কেন্দ্রীয় সরকার৷

বুধবার কেমব্রিজের হাভার্ড কেনেডি স্কুলে অর্থনীতি নিয়ে নিজের বক্তব্য রাখেন রঘুরাম রাজন৷ ২০১৬ সালে নভেম্বর মাসে ৫০০ ও ১০০০ টাকা নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় মোদী সরকার৷ সেই সময় আরবিআই গভর্নর ছিলেন রঘুরাম রাজন৷ সেই সময় বিরোধীদের একাংশ দাবি করে আরবিআইকে না জানিয়ে সরকার একতরফা ভাবে বিমুদ্রাকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল৷ তখন সেই অভিযোগ নস্যাৎ করেছিলেন রঘুরাম রাজন৷

Advertisement

আবারও তিনি একবার দাবি করেন, আরবিআইকে অন্ধকারে রেখে সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে এই কথা একদম ভুল৷ বলেন, ‘‘আমি একথা কখনোও বলিনি যে আমার সঙ্গে আলোচনা না করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল৷ আগেও বলেছি এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সরকার আমাদের সঙ্গে আলোচনা করেছিল৷ তখন বলেছিলাম এটা মোটেও ভালো সিদ্ধান্ত নয়৷ শুধু তাই নয় এই সিদ্ধান্তকে ঠিকমতো কার্যকর করা হয়নি৷ কারণ আমরা পরে দেখেছি ৮৭.৫ শতাংশ টাকাই ফিরে এসেছে৷ যার অর্থ বাজারে যে টাকা চালু ছিল তার সবটাই প্রায় ফিরে এসেছে৷ যে উদ্দেশে এই নোটবাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল তার কোনও প্রত্যক্ষ প্রভাব আমরা দেখতে পাইনি৷’’

অনেকে এই সিদ্ধান্তের সপক্ষে বলে থাকেন, মানুষের মধ্যে কর ফাঁকি দেওয়ার প্রবণতা অনেকটা কমে গিয়েছে৷ আগামিদিনে বিমুদ্রাকরণের ইতিবাচক প্রভাব দেখা যেতে পারে৷ সেই প্রসঙ্গে রঘুরাম রাজন জানান, ভবিষ্যতে এর কী ইতিবাচক প্রভাব পড়বে সেটা ভবিষ্যতেই জানা যাবে৷ এখন বলতে পারি, সেই সময় এটা উপযুক্ত সিদ্ধান্ত ছিল না৷

----
--