আদিবাসী জনজাতির উন্নয়নের দাবিতে বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: জঙ্গলমহলের আদিবাসী জনজাতির উন্নয়নের দাবিতে বাঁকুড়া জেলা শাসকের দফতরের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ বেশ কয়েকটি আদিবাসী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা৷ বুধবার পশ্চিমবঙ্গ আদিবাসী অধিকার রক্ষা মঞ্চ, পশ্চিমবঙ্গ সামাজিক ন্যায় মঞ্চ ও পশ্চিমবঙ্গ লোকশিল্পী সংঘের এই বিক্ষোভ সভায় হাজির ছিলেন সংগঠনগুলির হাজারো কর্মী৷

জঙ্গলমহল সহ জেলার সর্বত্র আদিবাসী ও তপশিলী মানুষদের ন্যায্য মজুরি, আদিবাসী-তপশিলী ও পিছিয়ে পড়া অংশের মানুষের শিক্ষার সুযোগ, সাঁওতালী মাধ্যম স্কুল গুলিতে স্থায়ী শিক্ষক নিয়োগ, আদিবাসী ছাত্রাবাসগুলিতে ছাত্র ছাত্রীদের পড়াশুনার সুযোগ সহ বারো দফা দাবিতে এদিন সরব হন তাঁরা৷

এদিন বিক্ষোভ সমাবেশে পশ্চিমবঙ্গ আদিবাসী অধিকার রক্ষা মঞ্চের সম্পাদক ও প্রাক্তন সাংসদ পুলিন বিহারী বাস্কে তাঁর ভাষণে আগাগোড়া রাজ্য সরকারকে তুলোধনা করেন৷ তিনি বলেন, ‘‘আজ এই সরকারের আমলে আদিবাসী শিক্ষার করুণ অবস্থা৷ একের পর এক আদিবাসী হোস্টেল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যাদের টাকা আছে তারাই কেবলমাত্র পড়াশুনার সুযোগ পাবে। যাদের সেই টাকা নেই তারা যাতে পড়াশুনার সুযোগ না পায় তার ব্যবস্থা করে দিয়েছে এই সরকার৷ দিনের পর দিন আদিবাসী জনসংখ্যা বাড়ছে৷ কিন্তু শিক্ষার মান কমছে৷’’

- Advertisement -

আদিবাসী তপশিলী জাতি ও সংখ্যা লঘুর উন্নয়নের নামে ভাঁওতা ছাড়া কিছুই হচ্ছেনা বলেও তিনি এদিন দাবি করেন৷ বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিন বিহারী বাস্কে ছাড়াও রাজ্যের দুই প্রাক্তন মন্ত্রী উপেন কিস্কু ও দেবলীনা হেমব্রম উপস্থিত ছিলেন। তারাও আদিবাসীদের প্রতি রাজ্য সরকারের ‘বিমাতৃসুলভ আচরণে’র অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন। এদিনের বিক্ষোভ সমাবেশ ঘিরে কড়া পুলিশি নিরাপত্তার ব্যবস্থা ছিল।

Advertisement
---