ফাইল চিত্র৷

সুভাষ বৈদ্য,কলকাতা: ডেঙ্গিকে জব্দ করতে রাখীর ফাঁদ৷ হাতে রাখী পড়তেই জ্বল জ্বল করবে সচেতনতার বার্তা, ‘ডেঙ্গি নয়, মশা যাক, মানুষ থাক’৷ ডেঙ্গি রুখতে রঙিন সুতোর রাখীকেই হাতিয়ার করল শহরের স্বেচ্ছাসেবি সংস্থা মেডিক্যাল ব্যাঙ্ক৷ ট্রাফিক পুলিশের সহযোগিতায় শহরের রাজপথ থেকে গলিপথে ঘুরে ঘুরে ডেঙ্গি সচেতনতার রাখি বাঁধলেন সংস্থার কর্মীরা৷

প্রায় পাঁচ হাজার রাখী তৈরি করেছে মেডিক্যাল ব্যাঙ্ক৷ শোভাবাজার মোড়,জোড়াবাগান, উল্টোডাঙ্গা,যাদবপুরসহ শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ওই রাখী পরিয়ে ডেঙ্গি সচেতনার প্রচার করা হয়৷ শুধু সাধারন মানুষই নয় এদিন পুলিশের হাতেও পরিয়ে দেওয়া হয় এই রাখী৷ রবিবাসরীয় কলকাতায় ট্রাফিক সিথিল, তাই সচেতনতামূলক ডেঙ্গি রাখী পড়ার হিড়িক ছিল চোখে পড়ার মতই৷

Advertisement

পড়ুন:রেশমি সুতোর বাঁধনে একাকার দুই বাংলা

স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্নধার ডি আশিস জানালেন, ডেঙ্গি নিয়ে বার বার সচেতন করা হলেও এখনও মানুষ সতেতন হননি৷ তাই আমাদের এই অভিনব উদ্যেোগ৷ জোড়াবাগান ট্রাফিক গার্ডের পুলিশের সহযোগিতায় ডেঙ্গি সচেতনতাকে সামনে রেখে রাখী উৎসব পালন করা হয়৷ উৎসবে অংশগ্রহন করে নবদিশা স্কুলের ছাত্রীরাও৷ মূলত এরা প্রত্যেকেই পথ শিশু৷ ডেঙ্গি রাখী পরানোর সঙ্গে সঙ্গে তাদেরকে বোঝানো হয় কীভাবে ডেঙ্গি থেকে বাঁচা যায়৷ বর্ষায় ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার সম্ভাবনা প্রবল, রাজ্যে ডেঙ্গিতে মৃত্যুর খবরও পাওয়া গিয়েছে৷ ইতিমধ্যেই পুরসভা, স্বাস্থ্য দফতর ডেঙ্গি মোকাবিলায় নেমেছে৷

মশা মারার কামান, তরল ওষুধ স্প্রে ও ব্লিচিং পাউডার ছিটিয়ে এই কাজ শুরু হয়েছে অনেক দিন আগেই৷ তা সত্ত্বেও ডেঙ্গি নিয়ে ততটা সচেচন চোখে পড়ছে না৷ কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় জ্বরে আক্রান্তদের শরীরে ডেঙ্গির ভাইরাস মিলেছে বলেও জানা যাচ্ছে৷

শহরে ডেঙ্গির প্রসার রুখতে তাই রাখীকেই সম্বল করল মেডিক্যাল ব্যাঙ্ক৷ হরেক রং, থিম বা কার্টুন সজ্জিত রাখী নয়, সচেতনতার বার্তাবাহী এই রাখী ডেঙ্গির বিরুদ্ধে যেন এক ঠান্ডা লড়াই, যা শুধুই সুস্থ থাকার সুস্থ রাখার৷

----
--