রাজ্যের বাইরে ভারতীর লুকানো সম্পত্তির খোঁজে রাজুকে ফের জেরা গোয়েন্দাদের

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মঙ্গলবারের পর বুধবার৷ রাজ্যের বাইরে প্রাক্তন আইপিএস ভারতী ঘোষের কোথায় কী সম্পত্তি লুকানোর রয়েছে, তা জানতে তাঁর স্বামীকে ফের ভবানীভবনে ডেকে জেরা করলেন গোয়েন্দারা৷ সিআইডি সূত্রের খবর, এদিন সকাল থেকে দিনভর ভারতীর স্বামী এমএভি রাজুকে ম্যারাথান জেরা করেন কলকাতার দুঁদে গোয়েন্দারা৷ একের পর এক প্রশ্নমালায় কার্যত জেরবার হয়ে যান দাপুটে প্রাক্তন আইপিএসের স্বামী৷ স্বভাবতই, সন্ধের মুখে ভবানীভবন থেকে বেরানোর সময় দৃশ্যতই বিধ্বস্ত দেখিয়েছে তাঁকে৷ তবে জেরার প্রসঙ্গে সংবাদ মাধ্যমের সামনে কোনও মন্তব্য করতে চাননি তিনি৷

আরও পড়ুন: সৌজন্যের নজির গড়ে বুদ্ধর ফ্ল্যাট সংস্কারে উদ্যোগী মমতা

এক গোয়েন্দা কর্তার কথায়, ‘‘ইতিমধ্যে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে একাধিক আবাসনে তল্লাশি চালিয়ে ভারতী ও তাঁর স্বামীর উদ্ধার হওয়া নগদ অর্থের পরিমাণ প্রায় ৬ কোটি৷ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে প্রচুর সোনা৷’’ তোলাবাজির ধরন ও উদ্ধার হওয়া নগদ টাকার পরিমাণ থেকে গোয়েন্দাদের আশঙ্কা রাজ্যের বাইরে, এমনকী বিদেশের মাটিতেও লুকানো থাকতে পারে প্রাক্তন আইপিএসের প্রচুর সম্পত্তি৷

- Advertisement -

ওই গোয়েন্দা কর্তার কথায়, ‘‘রাজ্যের বাইরে কিংবা বিদেশে প্রাক্তন আইপিএস অফিসারের সম্পত্তি রয়েছে, অথচ তাঁর স্বামী জানেন না- এটা বিশ্বাসযোগ্য নয়৷ কারণ, এখনও পর্যন্ত উদ্ধার হওয়া সম্পত্তির অধিকাংশই যোথ মালিকানা৷ তাই এই জেরা৷’’

আরও পড়ুন: উচ্চশিক্ষার মানোন্নয়ন হচ্ছে না! দলেরই প্রাক্তন মন্ত্রীর মন্তব্যে অস্বস্তিতে তৃণমূল

সিআইডি সূত্রের খবর, পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুরে স্বর্ণ ব্যবসায়ীর করা তোলাবাজি মামলা কিংবা উত্তর ২৪ পরগণার গরু ব্যবসায়ীর ৪৫ লক্ষ লুঠের পাশাপাশি পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন পুলিশ সুপারের বিরুদ্ধে আরও একাধিক আর্থিক বেনিয়মের মামলায় তদন্ত শুরু করেছেন গোয়েন্দারা৷

ইতিমধ্যে তোলাবাজির মামলায় ভারতী ঘনিষ্ঠ পাঁচ পুলিশ অফিসারের ঠাঁই হয়েছে শ্রীঘরে৷ গত সপ্তাহেই ঝাড়গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে ভারতী ঘনিষ্ঠ ঝাড়গ্রামের মোটর ট্রান্সপোর্ট অফিসার দেবাশিস দাসকে৷ এদিন ঘাটাল আদালতের বিচারক ধৃত দেবাশিস দাসের গোপন জবানবন্দী সংগ্রহ করেন৷ এর আগে ওই মামলায় ঘাটাল আদালতে ধৃত দুই পুলিশ অফিসারের গোপন জবানবন্দী সংগ্রহ করেছিলেন বিচারক৷

আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ শুনলেনই না শুভ্রাংশু, জোর জল্পনা

Advertisement ---
---
-----