প্রসাদ হিসেবে ভক্তদের সোনা দেওয়া হয় এই মন্দিরে

ভোপাল: ভারতে মন্দিরের অভাব নেই। ভক্তরা আশীর্বাদ আর ঈশ্বরের দর্শন করতে ভিড় করেন সেই মন্দিরগুলিতে। কখনও মেলে মিষ্টি বা ফল প্রসাদ। খিচুড়ি ভোগ হলে তো অমৃতের মত তৃপ্তি করে ভক্তরা খান। কিন্তু প্রসাদ হিসেবে সোনা দেওয়া হয়, এমন কি শুনেছেন কখনও?

মধ্যপ্রদেশের রতলমে মহালক্ষ্মী মন্দিরে এমন হয়ে থাকে। সারা বছর ধরে মন্দিরের যথেষ্ট প্রাপ্তি হয়। সোনা রূপো ও বিভিন্ন সম্পদে পরিপূর্ণ থাকে মন্দির। কিন্তু প্রত্যেক বছর দীপাবলীর সময় ভক্তদের আবার একটি করে সোনা বা রুপোর গয়না ফেরত দেওয়া হয়। প্রসাদ হিসেবেই ভক্তদের হাতে তুলে দেওয়া হয় সোনা। এই সোনা প্রসাদ পেতেই ভক্তরা দূর দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন মহালক্ষ্মী মন্দিরে। যাতায়াতের খরচ যদিও সোনা প্রসাদের থেকে বেশি হয়। কিন্তু লক্ষ্মী ভান্ডারের গয়না পেতেই তারা ছুটে যান। এই গয়না কোনও ভক্ত ব্যবহারও করেন না। মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদ মনে করে আলমারির লকারে রেখে দেওয়া হয় এই গয়না।