প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, পূর্ব বর্ধমান: জাতীয় স্বাস্থ্য মিশন প্রকল্পের অধীনে পূর্ব বর্ধমান জেলায় শুরু হল সরকারি অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা৷ শুধু ১০২ ডায়াল করলেই বিনামূল্যে অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা পাওয়া যাবে৷ তবে কেবল শিশু,গর্ভবতী ও আর্থিকভাবে পিছিয়ে থাকা পরিবারের সদস্যরা বিনামূল্যে এই পরিষেবা পাবেন৷ বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে এই প্রকল্পের উদ্বোধন করেন জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব ও তৃণমূল জেলা সভাধিপতি দেবু টুডু৷

জানা গিয়েছে, এই অ্যাম্বুলেন্সে থাকছে জিপিএস ব্যবস্থা৷ থাকবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহায়ক৷ প্রতিটি অ্যাম্বুলেন্সে একজন চালক, সহকারি চালক, অ্যাটেনডেন্ট এবং তার সহকারী সহ মোট ৪জন থাকবে। সকলেই প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। এছাড়া ২৪ ঘন্টা এই পরিষেবা পাওয়া যাবে৷

Advertisement

জিপিএস থাকায় অ্যাম্বুলেন্সের উপর মনিটরিং করা সহজ হবে৷ অনেক ক্ষেত্রে অ্যাম্বুলেন্সকে অন্য কাজে ব্যবহার করার অভিযোগ ওঠে৷ জিপিএস ব্যবস্থা থাকায় সেই প্রবণতা অনেকটাই কমবে বলে মনে করছেন জেলা প্রশাসনের এক আধিকারিক৷ এদিন অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের সভাপতি দেবু টুডু বলেন, এর ফলে গরিব ও পিছিয়ে পড়া মানুষেরা উপকৃত হবেন৷ ২৪ ঘন্টাই এই পরিষেবা পাওয়া যাবে৷ আপাতত ৪৮টি এই ধরনের অ্যাম্বুলেন্স কাজ করবে৷

জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানান, অ্যাম্বুলেন্সে থাকবে প্রাথমিক চিকিত্সার যাবতীয় বন্দোবস্ত। ২৩টি ব্লক ও ৬টি পুরসভা এলাকায় থাকবে এই ৪৮টি অ্যাম্বুলেন্স। এটি প্রসূতি মা ও শিশুদের জন্য বরাদ্দ করা হলেও জেলা পুলিশ সুপার কুণাল আগরওয়াল জানিয়েছেন, বিশেষ কোনও ঘটনার ক্ষেত্রে আবেদন বিচার করে এই অ্যাম্বুলেন্সকে তারাও কাজে লাগাতে পারবেন।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশকে ৫টি অ্যাম্বুলেন্স প্রদান করেছে। এগুলি ২নং জাতীয় সড়ক বরাবর থাকছে। জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, এই মাতৃযানগুলি প্রসূতি মা ও শিশুদের প্রয়োজনে তাদের বাড়ি থেকেই হাসপাতালে নিয়ে আসতে পারবে। তিনি জানিয়েছেন, এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহেই পূর্ব বর্ধমান জেলার অ্যাম্বুলেন্স চালক ও মালিকদের নিয়ে তারা বৈঠকে বসতে চলেছেন। অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্গে নার্সিংহোমের অবৈধ আঁতাতে রাশ টানতে একাধিক পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব কুমার রায়, মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ সুকুমার বসাক, হাসপাতাল সুপার উৎপল দাঁ ও জেলা পুলিশ সুপার কুণাল আগরওয়াল সহ অন্যান্যরা।

----
--