কলকাতায় মোদীর সভা: কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে মতপার্থক্য রাজ্য বিজেপির

দেবময় ঘোষ, কলকাতা: সুপ্রিম কোর্টে ঝুলে রয়েছে রাজ্যে বিজেপির রথযাত্রার ভবিষ্যত৷ সেই কারণেই, কলকাতায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জনসভা নিশ্চিত করা যায়নি৷ প্রধানমন্ত্রীর জনসভা নিয়ে রাজ্য বিজেপি এবং কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্বের মত পার্থক্য রয়েছে৷ রাজ্য বিজেপির তরফ থেকে কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে ২৯ জানুয়ারি যে কোনও মূল্যে সভা করতে চাওয়া হচ্ছে৷

কিন্তু, রথযাত্রার পরিপ্রেক্ষিতে কলকাতায় নরেন্দ্র মোদীর জনসভা নিয়ে ‘ধীরে-চলো-নীতি’তে বিশ্বাসী কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্ব৷ আদালতে রথযাত্রার ফয়সালা না হওয়া পর্যন্ত মোদী কলকাতায় পা রাখবেন না – এমনটাই চাইছে কেন্দ্রীয় বিজেপি৷ হাল ছাড়ছে না রাজ্য বিজেপিও৷ মোদীকে যেন বছরের শুরুতেই কলকাতায় আনা যায়, সেই ব্যাপারে জোর চেষ্টা চলছে৷ শনিবার শেষ বেলায় এই টানপোড়েনের অবসান হতে পারে৷

রাজ্য বিজেপি সূত্র যা খবর, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর জানুয়ারি মাসেই রাজ্যে আসছেন৷ কলকাতা (২৪ জানুয়ারি) এবং শিলিগুড়ি (১৬ জানুয়ারি) সফর করবেন৷ তবে সফরে অমিত শাহের কার্যক্রম কী হবে তা ঠিক করা হয়নি৷ কলকাতা এবং শিলিগুড়িতে অমিতের সভার অনুমতি ইতিমধ্যে দিয়েছে রাজ্য সরকার৷ তবে অমিত কী কোনও জনসভা আদৌ করবেন, নাকি তাঁর সফরসূচী কর্মীসভা এবং সেমিনারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে, শনিবারের মধ্যেই ঠিক হবে৷

রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু বলেন, ‘‘বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির সভা ঠিক করতে পারে রাজ্য পার্টি৷ এটা রাজ্য পার্টির এত্তিয়ারের মধ্যেই পড়ে৷ কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর সফরসূচীতে রাজ্য পার্টির কোনও হাত নেই৷ কেন্দ্রীয় বিজেপির সংসদীয় নেতৃত্ব এবং প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর তা ঠিক করে৷ তবে শনিবারের পর প্রধানমন্ত্রীর সফর এবং অমিত শাহজির সফর নিয়ে ধোঁয়াশা কেটে যাবে৷

লোকসভা নির্বাচনের দেশের পূর্বদিকেই তাকিয়ে রয়েছে নরেন্দ্র মোদী৷ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দেশের পূর্বদিকই মোদীর অস্তমিত সূর্যকে পুনরায় উদিত করতে পারে৷ কর্ণাটকে ক্ষমতায় আসতে পারেনি দল ৷ গুজরাটে কংগ্রেস-হার্দিক প্যাটেল-জিগনেশ-অল্পেশরা প্রতিনয়ত হুমকি দিচ্ছে ৷ সব থেকে বড় রাজ্য উত্তরপ্রদেশে জনসমর্থন কমছে৷

এ অবস্থায় দেশের পূর্বভাগ থেকে ৩৪টি আসন দখল করতে চাইছে বিজেপি৷ কিন্তু মোদী-শাহ বুঝে গিয়েছেন দেশে প্রতিষ্ঠান বিরোধীতার হাওয়া বইছে৷ ২০১৪ সালের গো-বলয়ে ১৯০ আসনের মধ্যে ১৬০টি আসনে জিতে কংগ্রেসের যাবতীয় স্বপ্ন উত্তর ভারতেই শেষ করে দিয়েছিল বিজেপি৷ কিন্তু ২০১৯ সালে দেশে অন্য হাওয়া বইছে, তা রাজনীতিতে পোড়খাওয়া এই জুটির বুঝতে দেরি হওয়া উচিত নয়৷

---- -----