জেলা সফরে গিয়ে বিজেপির ‘গোষ্ঠী কোন্দলে’র সাক্ষী থাকলেন দিলীপ

টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন৷ বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর মুকুল রায় মঙ্গলবার প্রথম বাঁকুড়া জেলায় সভা করবেন৷ এই দুইয়ের মাঝেই বিজেপির ‘গোষ্ঠী কোন্দলে’র সাক্ষী থাকলেন দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷

সোমবার বাঁকুড়ায় দলের এক সভায় যোগ দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ৷ সোমবারই বাঁকুড়া শহরের সার্কিট হাউসে রাজ্য সভাপতির সঙ্গে দেখা করে কয়েকজন জেলা নেতা একটি দাবিপত্র তুলে দেন৷ সেই দাবিপত্র সংবাদমাধ্যমের হাতে আসতেই দেখা যায়, সাংগঠনিক ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে দলের জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র ও রাজ্য সহ সভাপতি বাঁকুড়ার সুভাষ সরকারের অপসারণের দাবি জানানো হয়েছে৷ সেই দাবিপত্রে বাঁকুড়া বিজেপির কয়েকজন শীর্ষ নেতার সই ও পদের উল্লেখ রয়েছে৷ এবিষয়ে পরে বাঁকুড়া ধর্মশালায় সাংবাদিক বৈঠকে এই দাবিপত্রের কথা মেনে নেন৷

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘‘সব সমস্যার কথা শুনেছি৷ খতিয়ে দেখা হবে৷’’ তবে একই সঙ্গে আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে সবাইকে এক সাথে কাজ করার কথাও তিনি বলেন৷ এদিকে সাংবাদিক বৈঠকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি শাসকদল তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হন৷ অবৈধভাবে বালি ও কয়লা পাচারে তৃণমূলের যোগ আছে বলে তিনি অভিযোগ করেন৷ একই সঙ্গে সদ্যসমাপ্ত সবং বিধানসভা উপনির্বাচনে রিগিং ভোট লুট হয়েছে দাবি করেও তিনি বলেন, ‘‘বিজেপির ভোট বেড়েছে৷’’ এই ভোট বাড়াকে একটা ইতিবাচক দিক বলে তিনি মনে করেন৷

আগামিকাল মঙ্গলবার বাঁকুড়ার দুর্লভপুরে বিজেপি নেতা মুকুল রায় ও রাজ্য সভাপতি এক দলীয় জনসভায় যোগ দেবেন৷ বিজেপি নেতা হিসেবে প্রথম জেলা সফরে এসে মুকুল রায় কি বার্তা দেন তাঁর পুরানো সহযোগীদের সেই দিকেই তাকিয়ে বাঁকুড়ার রাজনৈতিক মহল থেকে সাধারণ মানুষ৷

-------
----