সংকট কাটাতে গভীর রাতে সরকারি কর্মীদের গণনার প্রশিক্ষণ

স্টাফ রিপোর্টার, রায়গঞ্জ: ভোটকর্মীদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরালো করার দাবিতে ভোট গণনা বয়কট করেছিল উত্তর দিনাজপুরের ভোটকর্মীরা৷ যার জেরে নজিরবিহীনভাবে সৃষ্টি হয়েছিল ভোট গণনা নিয়ে সংকট৷

বৃহস্পতিবার ওই জেলায় ভোট গণনা হবে কী হবে না তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল৷ সেই সংকট কাটাতে বুধবার রাতভর ভোট গণনার প্রশিক্ষণ দেওয়া হল জেলাশাসক দফতরের কর্মীদের৷

ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন নিখোঁজ হয়ে যান উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের ইটাহারের বানবোল প্রাথমিক স্কুলের বুথের প্রিসাইডিং অফিসার রাজকুমার রায়৷ মঙ্গলবার রায়গঞ্জের সোনাডাঙি এলাকায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক লাগোয়া রেললাইনের ধার থেকে তাঁর ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই বুধবার সকাল থেকেই বিক্ষোভে ফেটে পড়েন উত্তর দিনাজপুরের ভোট গণনার দায়িত্বে থাকা শিক্ষক ও সরকারি কর্মচারীরা৷ এমনকী বিক্ষোভের জেরে ভোট কর্মীরা গণনার প্রশিক্ষণও নেননি৷ ক্ষুব্ধ ভোটকর্মীদের বক্তব্য, বৃহস্পতিবার তাঁরা ভোট গণনার কাজে অংশগ্রহণ করবেন না৷

বুধবার গভীর রাত পর্যন্ত চলতে থাকে বিক্ষোভ৷ যার জেরে অনিশ্চিত হয়ে উঠে জেলার ভোট গণনা৷ এমনকী, এদিন রাতেই একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে শিক্ষকদের ভোট গণনার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়৷ ফলে কারা ভোট গণনা করবেন, তা নিয়ে অব্যাহত ছিল অনিশ্চয়তা৷

সেই সংকট ও অনিশ্চয়তা কাটাতে কাজে লাগানো হয় জেলাশাসক দফতরের কর্মীদের৷ জানা গিয়েছে, বুধবার রাতভর ভোট গণনার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় জেলাশাসক দফতরের কর্মীদের৷ তারাই আজ বৃহস্পতিবার জেলার ভোট গণনার দায়িত্ব পালন করছেন৷

-------
----