জিনস প্যান্ট পরে পান চিবিয়ে ‘কেস’ খেলেন সরকারি কর্মী

বরেলি: নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও অফিসে জিনস পরে এসেছিলেন এক কর্মী। শুধু তাই নয়, পানও চিবোচ্ছিলেন তিনি। তার ফলে তাঁকে গুনতে হল জরিমানা। কথায় বলে যেখানে বাঘের ভয় সেখানে সন্ধ্যে হয়। অনেকটা এমনই ঘটনা ঘটল ওই ব্যক্তির সঙ্গে। হঠাৎ অফিসে এসে হাজিরা দিলেন জেলা শাসক। এমন আচমকা সফরে ধরা পড়ে জরিমানা গুণতে হল কালেক্টরেটের ওই কর্মীকে।
গত বুধবার কাউকে কিছু না জানিয়ে অফিসে টহল দিতে শুরু করেন জেলা শাসক। ওই সময়ই তাঁর চোখে পড়ে বিশেষ জমি অধিগ্রহণ দফতরের করণিক আনওয়ার হুসেন কুরেশি দিব্যি পান চিবোচ্ছেন। শুধু তাই নয়, তাঁর পরনে রয়েছে জিনস। এভাবে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় ওই কর্মীর ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। সেইসঙ্গে তাঁকে সতর্কও করে দেওয়া হয়েছে।

ঘটনার পর জেলা শাসক বলেন, “রাজ্য সরকার নির্দেশিকা জারি করার পর সমস্ত কর্মীদের জন্য ১৫ দিন আগে বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে।” তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন “কর্মীদের কোনওরকম শৃঙ্খলাভঙ্গ বরদাস্ত করা হবে না।” নিয়ম ভাঙার কারনেই ওই কর্মীর জরিমানা হয়েছে বলে জানান তিনি। বারংবার নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে কড়া শাস্তির মুখে পড়তে হবে বলে জানানো হয়েছে।
ঘটনা হল সরকারি অফিসের দেওয়ালের কোনে পান, গুটখার পিকের দাগ খুবই ‘সাধারন’ দৃশ্য। এবার এর সঙ্গে যোগ দিল জিনস প্যান্ট।

এর আগে উত্তরপ্রদেশের বেরেইলি জেলার জেলা শাসক সুরেন্দ্র সিংহ সরকারি কর্মীদের পোশাক ও আচার আচরণ নিয়ে একটি নির্দেশিকা জারি করেছিলেন। ওই নির্দেশিকায় কর্মীদের অফিসে থাকাকালীন পান বা গুটখা না খাওয়ার ও জিনস না পরার কথা বলা হয়েছিল। জেলা শাসক কর্মীদের কাজে ফাঁকি দেওয়া রুখতে বিভিন্ন ব্যবস্থাও নিয়েছেন। কর্মীরা যাতে সময়ের আগে অফিস ছেড়ে কোনও কর্মী বেরিয়ে যেতে না পারেন তা নিশ্চিৎ করতে পার্কিং প্লেসও কাজের সময় তালাবন্ধ রাখার কাজও শুরু করেছেন তিনি।

- Advertisement -

Chobi – Jeans

Advertisement ---
---
-----