‘দেশ এক মহান নেতাকে চিরতরে হারাল’

চেন্নাই: রাজনৈতিক জগতে আরও এক ইন্দ্রপতন৷ ৯৪ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং ডিএমকে প্রধান এম করুণানিধি৷ মঙ্গলবার সন্ধ্যে ৬.১০ নাগাদ চেন্নাইয়ের কাবেরী হাসপাতালে প্রয়াত হন তিনি৷ প্রিয় নেতার প্রয়াণের খবরে শোকের ছায়া সমর্থকদের মধ্যে৷ অসুস্থতার কারণে বিগত কয়েকদিন ধরেই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি৷ তখন থেকেই বাইরে সমর্থকদের ভিড় একটু একটু করে বাড়তে থাকে৷ পরিস্থিতি দেখে পুলিশও মোতায়েন করা হয়৷

তাঁর প্রয়াণে তামিলনাড়ু সরকার বুধবার ছুটি ঘোষণা করে৷ পাশাপাশি সাতদিনের শোকদিবস পালনের কথাও ঘোষণা করা হয়৷ ইতিমধ্যেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে থিয়েটার৷ করুণানিধির দেহ কাবেরী হাসপাতাল থেকে গোপালপুরম ভবনে নিয়ে যাওয়া হবে এবং বুধবার সকালে রাজাজি হলে শেষ শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের জন্য তা শায়িত থাকবে৷

ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ট্যুইট করে শোকপ্রকাশ করেছেন৷

রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দসহ আরও বহু নেতা ডিএমকে প্রধানের প্রয়াণে ট্যুইটারে শোকজ্ঞাপন করেছেন৷ করুণানিধির পরিবার এবং শোকাতুর সমর্থকদের প্রতিও সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি৷

শোকপ্রকাশ করে ট্যুইট করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

কংগ্রেস নেতা রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা জানান, দেশ এক মহান নেতাকে হারালো৷ ডিএমকে পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান তিনি৷ কংগ্রেস একজন ভালো বন্ধুকে হারালো বলেও মন্তব্য করেন তিনি৷

তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী পালানিস্বামী শোকপ্রকাশ করে জানান, ডিএমকে প্রধান এমন একজন ছিলেন যিনি রাজনীতি, সিনেমা, সাহিত্য সর্বক্ষেত্রেই তাঁর অবদান রেখেছেন৷

তবে বর্তমান পরিস্থিতির কথা চিন্তাভাবনা করে ইতিমধ্যে প্রয়াত ডিএমকে প্রধানের ছেলে স্ট্যালিন সমর্থকদের কাছে শান্তি এবং শৃঙ্খলা বজায় রাখার আবেদন করেছেন৷ পাশাপাশি, চিকিৎসক এবং কাবেরী হাসপাতালের ম্যানেজমেন্টকেও এই পরিস্থিতিতে সর্বক্ষণ সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন৷

Advertisement
----
-----