চুরি না করলে মিলবে না খাবার, মায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ শিশুকন্যার

স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: চুরি না করলে মিলবে না খাবার। নিজের মায়ের বিরুদ্ধে এমনই গুরুতর অভিযোগ আনল ৬ বছরের এক শিশুকন্যা৷ ঘটনার জেরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মালদহর ইংরেজবাজার থানা এলাকার কৃষ্ণ কালিতলা এলাকায়। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কয়েকদিন আগে কৃষ্ণ কালিতলা এলাকার বাসিন্দা মায়া ঘোষের বাড়িতে চুরি হয়। নগদ ১৩০০ টাকা ও প্রায় ৪০ হাজার টাকার সোনার গহনা চুরি যায়৷ বাড়ির সদর দরজা খোলা পেয়ে সংশ্লিষ্ট শিশুটি চুরি করে বলে অভিযোগ৷ তবে ঘটনাটি দেখে ফেলে এলাকারই অন্য কয়েকজন শিশু৷

আরও পড়ুন: টয়লেট ও এসি কামরা অপরিস্কার, ট্রেন দাঁড় করিয়ে বিক্ষোভ যাত্রীদের

স্থানীয় সূত্রের খবর, তারাই বিষয়টি জানায় মায়াদেবীকে৷ এরপরই মায়াদেবী স্থানীয় ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ জানায়। তদন্তে নেমে পুলিশ ৬ বছরের অভিযুক্ত ওই শিশুটিকে জেরা করে৷ পুলিশের দাবি, জেরায় শিশুটি জানায়, চুরি না করলে বাড়িতে খেতে দেওয়া হবে না বলে তাকে তার মা জানিয়ে দেয়৷ এমনকি চুরি করতে না গেলে মারধরও করা হত৷ তাই বাধ্য হয়ে সে চুরির পথ বেছে নেয়৷

অভিযোগ, প্রথমে চুরি করতে না যাওয়ায় তিন দিন ধরে তাকে খেতে দেওয়া হয়নি। এরপরই পুলিশ স্থানীয় একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ রাখে৷ তারাই স্থানীয় একটি হোমে শিশুটির থাকার ব্যবস্থা করে৷ বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতে সমগ্র জেলা জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে৷ বাসিন্দারা বলছেন, ‘‘কু’পুত্রর কথা শোনা যায়, কিন্তু কু’মাতার কথা তো শোনা যায় না৷ এ কেমন মা?’’

আরও পড়ুন: ঋণ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে প্রতারণা

যদিও শিশুটির মা সরস্বতী দর্জির দাবি, ‘‘আমার স্বামী দীপেন ভিন রাজ্যের শ্রমিকের কাজ করে৷ ঠিকমতো টাকা পাঠায় না৷ ফলে বাড়িভাড়া ও সংসার চালানো আমার পক্ষে খুবই কষ্টকর হয়ে দাঁড়িয়েছে।’’ তবে মেয়েকে চুরির জন্য কখনও জোর করা হয়নি বলে দাবি করেছেন তিনি৷ ইংলিশবাজার থানার আই সি পূর্ণেন্দু কুণ্ডু অবশ্য জানান, ‘‘ শিশুটিকে হোমে পাঠানো হয়েছে৷ ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে।’’

----
-----