বাজেটে নতুন করে বাড়ছে না কর: অর্থমন্ত্রী

ঢাকা: সামনেই বাংলাদেশে ভোট৷ আর ভোটের আগেই সুখবর দিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ভোটের আগে সরকারের শেষ বাজেটে নতুন করে কোনও কর আরোপ করা হচ্ছে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন তিনি৷

সংসদে বাজেট উপস্থাপনের তিন দিন আগে সোমবার সচিবালয়ে বাজেট নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন আবুল মাল আবদুল মুহিত৷ তখনই তিনি এই ঘোষণা করেন৷ মুহিত সাংবাদিকদের প্রশ্নে বলেন, ‘‘এই বছরের সবচেয়ে খুশির ব্যাপার হল বাজেটে নতুন করে কোনও কর আরোপ করা হচ্ছে না৷ এই সংবাদ যে নিঃসন্দেহে খুশির খবর তা বলা বাহুল্য৷’’ পাশাপাশি তিনি আরও জানান, আগামী অর্থ বর্ষের জন্য সাড়ে চার লক্ষ কোটি টাকারও বেশি অঙ্কের বাজেট দিতে চলেছেন তিনি৷

তবে এই বৈঠকে সামবাদিকরা প্রশ্ন তোলেন, কর না বাড়লে রাজস্ব কিভাবে বাড়াবে৷ সেই প্রশ্নে মুহিত বলেন, “আমাদের রাজস্ব আহরণকারী সংস্থা এনবিআরের লোকজনের মন-মানসিকতায় পরিবর্তন হয়েছে। হয়রানি কমে গিয়েছে৷ প্রসেসিং সহজ হওয়ায় আয় বৃদ্ধি পেয়েছ। আমরা লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিলাম আয়কর রিটার্ন দাখিলকারীর সংখ্যা হবে ১৫ থেকে ২০ লক্ষ। কিন্তু সেই সংখ্যা ইতিমধ্যেই ৩৩ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। এটা ভবিষ্যতের জন্য অত্যন্ত প্রত্যক্ষ বিষয়। আরও ভালো দিন এগিয়ে আসছে৷ নতুন করদাতাদের অধিকাংশই ইয়াং পিপল।’’

- Advertisement -

এই প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘‘কোন লেভেল থেকে কর নেওয়া হবে সেটা যেমন গত বছর কোনও পরিবর্তন হয়নি, আগামীতেও হবে না৷ এটা নতুন কিছুই নয়৷ অনেক দেশেই এটি পরিবর্তন করা হয় না।’’ টাকা সাদা করার বিষয়ে নতুন কোনও সুযোগ থাকছে না তবে বাজেটে ‘ইউনিভার্সাল পেনশন স্কিম’ রূপরেখা থাকবে বলেও তিনি জানিয়ে দেন। পাশাপশি তিনি বাজেটের পর সঞ্চয়পত্রে সুদের হার কমানো হবে বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন৷ শুধু তাই নয়, বাজেটে বরাদ্দ থাকছে রোহিঙ্গাদের জন্য ৪০০ কোটি টাকা৷

প্রসঙ্গত কর্পোরেট করেও এখনই পরিবর্তন আসছে না বলে জানান অর্থমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, ‘‘কর্পোরেট করে তেমন কোনও পরিবর্তন নেই৷’’ তবে সোশ্যাল মিডিয়া করের আওতায় থাকছে কিনা সেই প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘‘বাইরের থেকে যারা ব্যবসা করে তাদের করের আওয়ায় আনা তেমন কিছু না৷ আমাদের প্রতিবেশীরা আগেই করেছে।’’ তবে সিগারেটের ওপর কর বাড়বে বলে তিনি জানিয়েছেন।

Advertisement
---