ধেয়ে আসছে প্রবল ঝড়, বাঁচতে হলে কি করবেন জানুন

কালবৈশাখী হোক বা ধূলিঝড়, যতই বাড়ির মধ্যে থাকুন না কেন বুক দুরু দুরু করে না, এমন বোধ হয় হাতে গোনা৷ আর ট্রাভেলের মধ্যেই যদি এমন দুর্যোগে পড়েন? তাহলে তো কথাই নেই৷ কিন্তু বেশ কিছু টিপস্ মেনে চললে ভয়টুকু যেমন কাটিয়ে উঠতে পারবেন তেমনই নিরাপত্তার বিষয়টিও জোরদার হবে৷

কি করবেন:
নিরাপত্তার জন্য এমারজেন্সি কিট হাতের কাছে রাখুন
দরজা-জানালা বন্ধ রাখুন
কোনও ধারালো বস্তু বা জিনিস খোলা অবস্থায় রাখবেন না
বাড়ির বাইরে কোনও আসবাব (ফার্নিচার, ডাস্ট-বিন) রাখা থাকলে তা নিরাপদ স্থানে এনে রাখুন
রেডিও, টেলিভিশন, সংবাদপত্র, অথবা অনলাইন নিউজে আবহাওয়ার খবরে চোখ রাখুন
বাচ্চারা এবং পোষ্য বাড়ির মধ্যে রয়েছে কি না নজর রাখুন

ঝড়ের পূর্বাভাস পেলে বাইরে কোথাও ঘুরতে না যাওয়ায় উচিত
বিভিন্ন ইলেকট্রিক্যাল যন্ত্র সম্ভব হলে আনপ্লাগ করে দিন
বাথটব বা শাওয়ারে স্নান এই সময় এড়িয়ে গেলেই ভালো
টিনের ছাদ, ফায়ার প্লেস থেকে দূরে থাকুন
ঝড়ে গাছের তলায় আশ্রয় নেবেন না ভুলেও
টেলিফোনের তার, বৈদ্যুতিক তার, এসব থেকে দূরে থাকুন
এমনকি সুইমিং পুল, লেক, নৌকা, এই সব কিছুর থেকেও দূরে থাকতে হবে৷

- Advertisement -

পড়ুন: রাতেই শুরু ধুলো ঝড়ের তাণ্ডব

প্রসঙ্গত, ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে আছড়ে পড়তে চলেছে ধুলোর ঝড় এমন সতর্কতা আগেই জারি করা হয়েছিল৷ খুব শীঘ্রই সীমান্ত পার থেকে সেই ঝড় ধাক্কা মারবে উত্তর ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে৷ জানিয়েছিল আবহাওয়া দফতর৷ রাজস্থান ও দিল্লিতে ইতিমধ্যেই স্কুল গুলিকে দুদিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে৷ পাশাপাশি উত্তর প্রদেশেও স্কুল গুলিতে ছুটি ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে৷ ইতিমধ্যেই গ্রেটার নয়ডা, দাদরিতে লোড শেডিং হয়ে গিয়েছে৷ তার সঙ্গে আকাশে রয়েছে বিদ্যুতের ঝলকানি৷ ধুলোর ঝড়ের কারণে দৃশ্যমানতা কমে গিয়েছে যমুনা এক্সপ্রেসওয়েতে৷ জানা গিয়েছে ৮ তারিখ পর্যন্ত মাঝে মাঝেই ৫০ থেকে ৬০ কিমি বেগে ঝড় বইবে৷ কখনও তা ঘন্টায় ৮০ কিমি পর্যন্তও পৌঁছতে পারে৷

দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে “নিত্যযাত্রীরা বাড়ি থেকে বেরনোর আগে আবহাওয়ার খবর জেনে বেরোন৷” গত সপ্তাহেই এই ‘আন্ধি-তুফান’ এ পাঁচ রাজ্যে কম করেও ১২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ প্রায় ৩০০ মানুষ গুরুতর জখম হন৷ সাধারণ মানুষকে সতর্ক কার হয়েছে অতি উৎসাহিত হয়ে তাঁরা যেন বাড়ির ছাদে বা উচু বিল্ডিং এর ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে ঝড় দেখার চেষ্টা না করেন৷ কোনও গাছের নীচে না দাঁড়িয়ে থাকেন বা গাড়িকেও গাছের নীচে না দাঁড় করিয়ে রাখেন৷

Advertisement ---
---
-----