‘ঈগলের চোখ’ ট্রেলারে শবর জারি রাখল সাসপেন্স

কলকাতা:  “জীবন বড়ো অদ্ভুত..এর এক একটি মোড়ে এক একটা গল্প দাঁড়িয়ে থাকে। অনেকটা উপর থেকে দেখলে সবটা দেখা যায়…” বাংলা ছবির দুনিয়ার দুঁদে গোয়েন্দাদের প্রথম আবির্ভাবেই হারিয়ে দিয়েছিলেন লাল-বাজারের গোয়েন্দা বিভাগের শবর দাশ-গুপ্ত। ২০১৫-র প্রথম বাংলা ছবি হিসেবে ১০০ দিনের মাইলস্টোন ছুঁয়ে ফেলেছিল অরিন্দম শীলের ছবি ‘এবার শবর’। ইতিহাস তৈরি করতে আরও একবার ফিরছে শবর দাশগুপ্ত। সদ্য মুক্তি পেল ‘ঈগলের চোখ’ ট্রেলার।

ট্রেলার দেখেই বোঝা যাচ্ছে, ছবির মেকিং হুডানইটের মেজাজ বুনেছেন পরিচালক। ইগলের দৃষ্টি অনুসরণ করে শবর খুঁজছে খুনটা আসলে কে করল- নন্দিনীর স্বামী নাকি অন্য কেউ। তবে প্রশ্ন একটা নয়! রয়েছে অন্যদিকও। শবরের মনে উঠছে প্রশ্ন ঘটনাটি মার্ডার নাকি ডাকাতি। সব মিলিয়ে টানটান সাসপেন্স আর উত্তেজনায় ভরপুর ‘ঈগলের চোখ’ ট্রেলার। এবারও শবরের চরিত্রে শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়। সঙ্গে পায়েল সরকার, অনির্বাণ, জয়া ও গৌরব।

- Advertisement -

শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের শবর দাশ-গুপ্তকে প্রথম পর্দায় এনেছিলেন অরিন্দম শীল। ফেলুদা, ব্যোমকেশ, কাকাবাবু চেনা গোয়েন্দাদের থেকে সরে লালাবাজারের গোয়েন্দা অফিসারকে পর্দায় এনে তিনি বললেন, অন্য অনেক গোয়েন্দা হল, ‘এবার শবর’। সেই শুরু শবরের গোয়েন্দাগিরির। কিশোরদের উপযোগী রহস্যের গোয়েন্দাগিরি তাঁর প্রতিপাদ্য নয়। ব্যোমকেশের মতো সত্যাণ্বেষীও নন তিনি, কেননা গোয়েন্দাগিরিই তাঁর চাকরী। লাল বাজারের দুঁদে এই গোয়ান্দা পর্দায় আসছে খুন শিগগিরি।

Advertisement
----
-----