পিএফ থেকে সহজে গৃহঋণের সুযোগ

নয়াদিল্লি: এমন দিন এলো বলে প্রভিডেন্ড ফান্ড (পিএফ) থেকে গৃহের জন্য সহজেই ঋণ মিলবে৷ সাধ্যের মধ্যে গৃহ প্রকল্পে সুযোগ করে এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড ফান্ড অর্গানাইজেশনের (ইপিএফও ) ৫ কোটি সদস্যের জন্য এমন ব্যবস্থা করতে চলেছে কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রক৷ কারণ ২০২২ সালের মধ্যে ‘সকলের জন্য গৃহ’ নামে কেন্দ্রীয় সরকার লক্ষ্য স্থির করেছে , তারই জেরে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে নির্দেশে পেয়ে এমন পদক্ষেপ৷ বর্তমান নিয়মে, অন্তত পাঁচ বছর ধরে টাকা জমানোর পরে ইপিএফওর সদস্যরা বাড়ি কেনার জন্য ঋণ নিতে পারেন৷ তবে, এই ঋণ (বেতনের ৩৬ গুণ ) চাকুরি জীবনে কেবল একবার মাত্রই নেওয়া যায়৷

তাছাড়া ইপিএফও -র সদস্যদের মধ্যে যাঁদের আয় কম , তাঁদের সস্তার আবাসন প্রকল্পে সরকার ভর্তুকিও দিতে চায়৷ আবাসন প্রকল্পের সুবিধা দেওয়ার ক্ষেত্রে ইপিএফও সদস্যদের তিনটি বিভাগ রয়েছে- কম আয়, মধ্য আয় ও উচ্চ আয়৷ আয়ের ভিত্তিতেই এই গৃহঋণের সুবিধা দেওয়া হবে৷ ইপিএফ থেকে নেওয়া ঋণ মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করা যাবে৷ প্রয়োজনে এই প্রকল্পে সদস্যদের কম সুদে ঋণ দেওয়া হবে সেজন্য ইপিএফওর মধ্যেই একটি পৃথক সংস্থা তৈরি করা হতে পারে৷ সস্তার আবাসন প্রকল্পকে অগ্রাধিকারের তালিকায় এনে যাতে কম সুদে ঋণ দেওয়া যায় , তার জন্য ব্যাংক ও অন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলিকেও বলা হবে৷ এখন প্রভিডেন্ট ফান্ড যদি তার মোট তহবিলের ১৫ শতাংশ গৃহঋণ খাতে বরাদ্দ করে তা হলে মোট ৭০ ,০০০ কোটি টাকা ঋণ দেওয়া সম্ভব হবে৷ এর ফলে অতিরিক্ত ৩ .৫ লক্ষ সস্তার বাড়িও নির্মিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে৷ বর্তমানে ইপিএফও -র হাতে ৬.৫ লক্ষ কোটি টাকার আমানত রয়েছে৷ প্রতি বছর ৭০ ,০০০ কোটি টাকার বেশি আমানত জমা পড়ছে৷