টালিগঞ্জকে পঞ্চবাণে বিঁধল ইস্টবেঙ্গল

কলকাতা: কলকাতা লিগের আগে তাঁকে যখন দলে নেওয়া হয়েছিল সেই ভ্রু কুঁচকে ছিল অনেক লাল হলুদ সমর্থক৷ কিন্তু টালিগঞ্জের সঙ্গে পাফরম্যান্সের পর সেই প্লাজার নামেই জয়ধ্বনি দিলেন তারা৷ মঙ্গলবার বৃষ্টিভেজা মাঠে প্লাজার কারিকুরিতেই টালিগঞ্জ অগ্রগামিকে ৫-০ বিধ্বস্ত করল ইস্টবেঙ্গল৷ দুরন্ত হ্যাটট্রিক করলেন ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগোর স্ট্রাইকার৷

আরও পড়ুন: লাল হলুদের জয় চাইছেন ‘পাহাড়ি বিছে’

আগের ম্যাচে মহামেডানের সঙ্গে শেষ মুহূর্তের গোলে কোনওক্রমে হার বাঁচিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল৷ ওই ম্যাচে শেষ মুহূর্তে গোল করে দলের পতন রোধ করেছিলেন লালহলুদের ব্যাড বয় প্লাজা৷ গোল করে হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছিলেন তিনি৷ এদিনের ম্যাচে তাঁর নড়াচড়া দেখেই বোঝা যাচ্ছিল আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছেন৷ ২৭ মিনিটে যেভাবে টালি গোলকিপার সৌরভের সামনে থেকে গোল করলেন লারার দেশের এই স্ট্রাইকার তাতে জেগে উঠল লালহলুদ গ্যালারি৷ এরপর মাঠে শুধুই খালিদ জামিলের দল৷ বিরতির আগে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিলেন আমনা৷ কিন্তু সুযোগ মিস করেন সিরিয়ান ফুটবলার৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: পিয়ারলেসকে হারিয়ে ডার্বির উত্তাপ সঞ্চয় করল বাগান

বিরতির পর আরও আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে ইস্টবেঙ্গল৷ আমনা-প্লাজা জুটিতে তখন কাঁপছে সুভাষ ভৌমিকের দল৷ লালহলুদের সাঁড়াশি আক্রমণের চাপে আবার গোল খায় টালি৷ ৫০ মিনিটে বিপক্ষের দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে আন্তর্জাতিক মানের গোল করেন প্লাজা৷ ৫৮ মিনিটে গ্যাব্রিয়েলকে তুলে লোবোকে নামান খালিদ জামিল৷ ৬৩ মিনিটে হ্যাটট্রিক সম্পন্ন করেন লালহলুদ স্ট্রাইকার৷ বাঁদিক থেকে চুলোভার পাস থেকে গোল করেন তিনি৷

আরও পড়ুন: ভারতের কিংবদন্তি ফুটবলারের নামে স্কুলের নামকরণ নাগাল্যান্ডে

তিন গোল হয়ে যাওয়ার পর সেভাবে গা ঘামাননি ইস্টবেঙ্গল খেলোয়াড়রা৷ তবে শেষ ১০ মিনিটে আরও দুটি গোল করে জামিলের ছেলেরা৷ ৮১ মিনিটে পূজারি ও ৮৩ মিনিটে রাল্টে গোল করে ইস্টবেঙ্গলের গোল উৎসব সম্পূর্ন করেন৷

এই ম্যাচ জিতে গোল পার্থক্যে লিগ টেবিলে শীর্ষ পৌঁছে গেল ইস্টবেঙ্গল৷ ৮ ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান দু’দলের পয়েন্ট পয়েন্ট ২২৷ তাই লিগের ফয়সালা এবার হতে চলেছে ডার্বিতেই৷

আরও পড়ুন: মাইক্রোফোন ছেড়ে এবার বক্সিং রিং কাপাবেন রিও

গতবার গত বছর কল্যাণীতে ছিল কলকাতা লিগের ডার্বি৷ আইএফএ-র সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে ডার্বি খেলেনি সবুজমেরুন শিবির৷ ফলে ওয়াকওভার পেয়ে টানা সাতবার কলকাতা লিগ জিতে নেয় পদ্মাপারের ক্লাব৷ সেই জন্যই ঝামেলার জন্য এবারে কল্যাণীতে ম্যাচ দেয়নি আইএফএ৷ আর যুবভারতীতে খেলার কোনও প্রশ্নই নেই৷ বিশ্বকাপের জন্য মাঠের ভার এখন ফিফার উপর৷ তাই বাইরে খেলতে হচ্ছে দুই প্রধানকে৷ মোহন-ইস্টের সুবিধা মতই শিলিগুড়িতেই হবে ডার্বি৷ মাঠ নিয়ে সমস্যা শেষ৷ আট ম্যাচে পর দু’দলের পয়েন্টও সমান৷ তাই দুর্গাপুজোর আবহে ডার্বি নিয়ে উত্তেজনার পারদ আগেই চড়ে গিয়েছে এবার মাঠের লড়াইতে কে জেতে সেটাই এখন দেখার৷

Advertisement
---