কলকাতা: ডার্বির পরের ম্যাচ বরাবরই শক্ত গাঁট কলকাতার দুই প্রধানের কাছে। ফুড কর্পোরেশনকে পাঁচ গোল দিয়ে মোহনবাগান সেই গাঁট সহজে পেরিয়ে গেলেও ব্যর্থ হল ইস্টবেঙ্গল। বৃহস্পতিবার নিজেদের মাঠে পিয়ারলেসের কাছে ১-২ গোলে হেরে গেল সুভাষ ভৌমিকের ছেলেরা। সেই সঙ্গে লাল-হলুদের টানা নবম লিগ জয়ের পথে দেখা দিল বড়সড় প্রশ্নচিহ্ন।

লিগের ইঁদুরদৌড়ে সমানতালে পাল্লা দিচ্ছে ইস্ট-মোহন দুই দলই। সমসংখ্যক ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে বড় ম্যাচে মাঠে নেমেছিল তারা। কিন্তু বড় ম্যাচও নিষ্ফলা থাকায় লিগের শেষ তিন ম্যাচই নির্ণায়ক হয়ে দাঁড়ায়। সেই লক্ষ্যে বুধবার ফুড কর্পোরেশনকে পাঁচ গোলে উড়িয়ে দিয়ে লিগ জয়ের পথে একধাপ এগিয়ে গিয়েছিল সবুজ-মেরুন। লিগের দৌড়ে সমানভাবে টিকে থাকতে এদিনও প্রিয় দলের থেকে দুরন্ত পারফরম্যান্স আশা করেছিলেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকেরা। কিন্তু সেই আশায় কার্যত জল ঢেলে দিলেন সুরাবুদ্দিন, জবি জাস্টিনরা। বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের দলের কাছে হেরে লিগের লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়ল লাল-হলুদ।

নিজেদের মাঠে এদিন ম্যাচের ছয় মিনিটেই পিয়ারলেস স্ট্রাইকার ক্রোমার গোলে পিছিয়ে পড়ে লাল-হলুদ। এরপর আক্রমণ শানিয়ে ম্যাচে ফিরে আসার চেষ্টা করে তারা। কিন্তু একাধিক সুযোগ নষ্টের খেসারত দিয়ে প্রথমার্ধে আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি ইস্টবেঙ্গল। সহজ সুযোগ নষ্ট করে দলের কাজ কঠিন করে দেন লাল-হলুদ স্ট্রাইকার জবি জাস্টিন। রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলে আমনা, জবিদের রুখে দিতে সক্ষম হয় বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের ছেলেরা।

তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই প্রবলভাবে ম্যাচে ফিরে আসে লাল-হলুদ। আক্রমণে লোক বাড়িয়ে একের পর এক সুযোগ তৈরি করতে থাকে তারা। ৭২ মিনিটে আক্রমণের ফসল তুলে ম্যাচে সমতা ফেরায় ইস্টবেঙ্গল। রালতের ক্রস থেকে ফাঁকায় দাঁড়িয়ে গোল করে যান ডিফেন্ডার কাশিম আইদারা। সমতায় ফিরে ম্যাচ জয়ের লক্ষ্যে ঝাঁপিয়ে পড়ে লাল-হলুদ ফুটবলাররা। কিন্তু ছাড়বার পাত্র নন উলফ, রহিম নবি সমৃদ্ধ পিয়ারলেস। রক্ষণাত্মক ফুটবল ছেড়ে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে তারাও। ফলও পেয়ে যায় হাতেনাতে। ইস্টবেঙ্গল সমতায় ফেরার ছ’মিনিটের মধ্যেই প্রতি আক্রমণ থেকে ম্যাচে দ্বিতীয়বারের জন্য এগিয়ে যায় পিয়ারলেস। দূরপাল্লার শটে লাল-হলুদের জালে বল জড়িয়ে দেন নরহরি শ্রেষ্ঠা।

দ্বিতীয়বার পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে যায় ইস্টবেঙ্গল। শেষদিকে বিক্ষিপ্ত কয়েকটি আক্রমণ তুলে আনলেও আর গোলমুখ খুলতে পারেননি আমনারা। ফলে ১-২ গোলে হেরে লিগে প্রথম হারের মুখ দেখল ইস্টবেঙ্গল।

হারের ফলে ৯ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে লিগের লড়াইয়ে বেশ কয়েক কদম পিছিয়ে গেল লাল-হলুদ। উল্টোদিকে ৯ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে এই মুহূর্তে অ্যাডভান্টেজ সবুজ-মেরুন। গোল পার্থক্যেও চির প্রতিদ্বন্দ্বীদের পিছনে ফেলে দিয়েছেন দিপান্দা ডিকারা। সুতরাং, টানা ন’বার লিগ জয়ের লক্ষ্যে শেষ দু’ম্যাচে মোহনবাগানের পয়েন্ট নষ্টের দিকে তাকিয়ে থাকা ছাড়া উপায় নেই সুভাষের ছেলেদের। সেই সঙ্গে নিজেদের শেষ দু’ম্যাচেও চাই বড় ব্যবধানে জয়।

----
--