কলকাতা: ‘খান, রশিদ খান!’ ‘নাইট বধের’ পর জেমস বন্ডের মতো কায়দা করে এমনটা বলতেই পারেন রশিদ খান৷

কিংবা ডায়লগ বদলে আফগান স্পিনার বলতে পারেন, ‘রশিদ, নাম তো শুনা হি হোগা!’ কারণ আজ তো তাঁরই দিন!

একাই শেষ করে দিলেন নাইট রাইডার্সকে৷ ব্যাট হাতে ১০ বলে ঝোড়ো ৩৪৷ স্ট্রাইক রেট ৩৫০ ছুঁইছুঁই! গ্রীষ্মের সন্ধ্যেতে কালবৈখাশী ইডেন আগেও দেখেছে৷ চলতি আইপিএলেই দেখেছে একাধিকবার, কখন সেই সেই কালবৈখাশীর নাম ক্রিস গেইল৷ কখনও আবার ঈশান কিষাণ৷

কিন্তু চিকেন আফগানির স্বাদ-গুণের তারিফ করা কলকাতাবাসী কোনও দিনও কি ইডেনে আফগান ঝড় প্রত্যক্ষ করেছে? না করেনি৷ কলকাতাবাসীকে নতুন সেই স্বাদ চাখালেন ১৯ বছরের আফগান ম্যাজিশিয়ন৷ তাঁর ব্যাটিং তান্ডবেই লন্ডভন্ড হয়ে গেল নাইটদের সোনার সংসার৷ শেষমেষ নাইটরা ম্যাচ হারল ১৪ রানে৷ ফাইনালের টিকিট পেল সানরাইজার্স৷

শুধু ব্যাটিং তাণ্ডব থাকলে অন্য কথা৷ তারপর আবার বল হাতে ১৯ রান খরচ করে তিন উইকেট৷ রশিদের শিকারেরে তালিকায় লিন, উথাপ্পা আর রাসেল৷ প্রত্যেকেই এক একজন ম্যাচ উইনার৷ রশিদের সামনে যদিও সেই ম্যাচউইনাররাই এদিন একেবারে ডাহা ফেল৷ দিনের সেরা ইকোনকি রেটও তাঁর দখলে৷ সঙ্গে একটি রান আউট,দুটি ক্যাচ৷ এরপর বলার অপেক্ষা রাখে না শাখরুখ নয়, ইডেন খুঁজে পেল তার নতুন ‘খান’কে৷ ইনি রশিদ ‘সানরাজার্স’ খান!!! যাঁর তেজে ছারখার কেকেআর৷

----
--