স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: পারিবারিক বিবাদের জেরে বৌদিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করল দেওর৷ মাকে বাঁচাতে এসে ধারালো অস্ত্রের কোপে পড়ল বছর আঠারোর ছেলে৷ ঘটনাটি ঘটেছে মালদহ হরিশচন্দ্র পুর থানার শিব মন্দির এলাকায়৷ মৃতের নাম গৌরী সাহা৷ অভিযুক্ত দেওয়র প্রতাপ সাহা৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই এলাকার বাসিন্দা উত্তম সাহার সঙ্গে তাঁর ভাই প্রতাপ সাহার জমি নিয়ে বিবাদ চলছিল৷ তার মধ্যে জমিটি বিক্রি করা হয়৷ এরপর এই বিক্রির টাকা নিয়ে ফের শুরু হয় বিবাদ৷ শুক্রবার রাতে প্রতাপ তাঁর দাদা উত্তম বাবুর বাড়িতে গিয়ে তাঁর প্রাপ্য টাকা দিতে বলে৷ অভিযোগ প্রতাপের সঙ্গে উত্তমের স্ত্রী গৌরী দেবীর বিবাদ শুরু হয়৷

Advertisement

সেই সময় বৌদি গৌরী দেবীকে প্রতাপ চাকু দিয়ে একাধিক জায়গায় আঘাত করে। তিনি যন্ত্রণায় চিৎকার শুরু করে৷ তাঁর চিৎকার শুনে তাঁর ছেলে কৃষ্ণ কুমার সাহা ঘটনাস্থলে আসে৷ সেখানে গিয়ে সে দেখে তার মাকে কাকা চাকু দিয়ে আঘাত করছে৷ এই দেখে তাঁর মাকে বাঁচাতে যায় বছর আঠারোর ছেলে কৃষ্ণ৷ তাকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে তার কাকা। এই অবস্থায় চিৎকার চেঁচামেচি শুনে গ্রামবাসীরা ছুটে আসে৷ তাঁরা ঘটনাস্থলে আসতেই অভিযুক্ত সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

গ্রামবাসীরা আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়৷ সেখানে চিকিৎসক গৌরী দেবীকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আহত কৃষ্ণ কুমারকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এই ঘটনায় উত্তম সাহা তার ভাই প্রতাপের বিরুদ্ধে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা অভিযোগ দায়ের করে৷ তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত গা-ঢাকা দিয়েছে৷ পুলিশ তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে।

----
--