গুহায় আটকে পড়া শিশুদের উদ্ধার করতে মিনি-সাবমেরিন পাঠাচ্ছেন ইলন মাস্ক

ব্যাংকক: থাইল্যান্ডের গুহায় আটকে পড়া শিশুদের উদ্ধার করতে এবার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ‘স্পেস এক্স’। সংস্থার কর্ণধার ইলন মাস্ক একটি বিশেষ সাবমেরিন তৈরি করেছেন, যার মাধ্যমে শিশুদের সহজেই বের করে নিয়ে আসা যাবে। একটি ছোট সাবমেরিন বানানো হয়েছে, যা খুব ছোট জায়গার মধ্যে দিয়েও বের করা সম্ভব।

ওই সাবমেরিনের মাধ্যমে কীভাবে উদ্ধার করা সম্ভব, সেটাও ভিডিও-র মাধ্যমে দেখিয়েছেন ইলন মাস্ক। ভিডিও পোস্ট করেছেন ট্যুইটারে। লস অ্যাঞ্জেলসের সুইমিং পুলে পরীক্ষা করে দেখিয়েছেন তিনি। এই মেটালিক পডের ব্যাপারে থাইল্যান্ডের উদ্ধারকারী দলের সঙ্গে কথাও হয়েছে ইলন মাস্কের।

থাইল্যান্ডের তরফ থেকে জানানো হয়েছে গুহার ভিতরের অংশ সরু হওয়ায় মূল প্রতিকূলতা তৈরি হয়েছে। সেইজন্যই অক্সিজেন ভরা ওই সাবমেরিন তৈরি করা হয়েছে। দু’জন ডুবুরি টেনে নিয়ে যেতে পারবেন, এতটাই হালকা ওই সাবমেরিন।

উত্তর থাইল্যান্ডের থাম লুয়াং গুহায় যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলছে উদ্ধারকার্য। রবিবার গুহার ভিতরে আটকে থাকা থাই ফুটবল দলের ছ’জন কিশোরকে উদ্ধার করা হয়েছে। তার আগে কিশোরদের শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা করেন চিকিৎসকরা। এই চারজন কিশোরের শারীরিক অবস্থা দুর্বল হওয়ার কারণে তাদের আগে উদ্ধার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ।

বিশেষজ্ঞ ডুবুরিদের তত্ত্বাবধানে প্রায় ৪ কিলোমিটার প্যাসেজ পার করে তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। উদ্ধার করার পর দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় এই চার কিশোরকে। বাকিদের উদ্ধার করার কাজও চলছে ।

এদিকে প্রবল বৃষ্টিপাতের ফলে গুহায় জলের মাত্রা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। মার্কিন মহাকাশ ভ্রমণ সংস্থা স্পেসএক্সের সিইও ইলন মাস্ক ইতিমধ্যেই একটি সাবমেরিন পাঠিয়েছেন থাইল্যান্ডে। একটি টুইটে তিনি জানিয়েছেন ওই সাবমেরিনের সাহায্যে উদ্ধারকাজ আরও সহজ হবে। এর আগেও ইঞ্জিনিয়ারদের একটি বিশেষ দলকে থাইল্যান্ড পাঠিয়েছিলেন তিনি।

Advertisement ---
---
-----