তৃতীয় দিনের শেষে ইংল্যান্ড এগিয়ে ১৫৪ রানে

ওভালে আগ্রাসী কুক৷ ছবি-আইসিসি টুইটার

লন্ডন: প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডের ৩৩২ রানের জবাবে ভারত অলআউট হয়ে যায় ২৯২ রানে৷ অর্থাৎ প্রথম ইনিংসের নিরিখে ৪০ রানের ছোটোখাটো লিড পেয়ে যায় ব্রিটিশরা৷ দ্বিতীয় দফায় ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ড আপাতত তৃতীয় দিনের শেষে দু’উইকেট হারিয়ে ১১৪ রান তুলেছে৷ অর্থাৎ ভারতের থেকে এখনই তারা ১৫৪ রানে এগিয়ে রয়েছে৷

তার আগে দিনের শুরুটা মন্দ হয়নি টিম ইন্ডিয়ার৷ প্রথমে হনুমা বিহারী ও পরে টেল এন্ডারদের সঙ্গে নিয়ে রবীন্দ্র জাদেজার দুরন্ত লড়াই ওভাল টেস্টে ভাসিয়ে রাখে টিম ইন্ডিয়াকে৷ না হলে একসময় বড় রানে পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে ব্যাকফুটে চলে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল ভারতের৷

আরও পড়ুন: ওপেনারদের গড়া ভিতে পাল্টা লড়াই ভারতের

- Advertisement -

দ্বিতীয় দিনে ভারতের ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসাবে ঋষভ পন্ত যখন সাজঘরে ফেরেন, ভারতের স্কোর ছিল মোটে ১৬০ রান৷ অভিষেককারী হনুমা বিহারীর সঙ্গে জুটি বেঁধে সিরিজে প্রথমবার সুযোগ পাওয়া অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা ভরাডুবির হাত থেকে রক্ষা করেন ভারতকে৷

ক্যাচ ধরার ব্যর্থ প্রচেষ্টা কোহলির৷ ছবি-আইসিসি টুইটার

আত্মপ্রকাশেই অনবদ্য হাফসেঞ্চুরি করে হনুমা আউট হওয়ার পর টেল এন্ডারদের নিয়ে লড়াই জারি রাখেন জাদেজা৷ বিশেষ করে শেষ উইকেটের জুটিতে জসপ্রীত বুমরাহকে নিয়ে ৩২ রান যোগ করে দলের স্কোর তিনশোরা কাছাকাছি নিয়ে যান তিনি৷ তবে লোয়ার অর্ডার জাদেজাকে পর্যাপ্ত সঙ্গ দিতে না পারায় প্রথম ইনিংসে ভারত অলআউট হয়ে যায় ২৯২ রানে৷

আরও পড়ুন: প্রথম ইনিংসে ২৯২ রানে অলআউট ভারত

দ্বিতীয় দিনের শেষে ভারত প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান তুলেছিল ভারত৷ ক্রিজে অপরাজিত ছিলেন হনুমা ও জাদেজা৷ তার পর থেকে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করে সপ্তম উইকেটের জুটিতে আরও ৬৩ রান যোগ করেন দু’জনে৷ শেষে ব্যক্তিগত ৫৬ রানের মাথায় মঈন আলির বলে বেয়ারস্টোর দস্তানায় ধরা পড়ে যান হনুমা৷

হাফসেঞ্চুরির পর জাদেজা৷ ছবি-আইসিসি টুইটার

ইশান্ত শর্মাকে সঙ্গে নিয়ে আরও ১২ রান যোগ করেন জাদেজা, যার মধ্যে ভারতীয় পেসারের অবদান ছিল ৪ রান৷ ইশান্তকেও বেয়ারস্টোর দস্তানায় ধরা দিতে বাধ্য করেন মঈন৷ মহম্মদ শামিকে নিয়ে ১১ রান যোগ করলেও তাতে শামির যোগদান মাত্র ১৷ শামিকে ফেরান আদিল রশিদ৷

আরও পড়ুন: অ্যান্ডারসনের জরিমানা

শেষ উইকেটের ৩২ রানের পার্টনারশিপে বুমরাহ একটিও রান যোগ করতে পারেননি৷ সবটাই আসে জাদেজার ব্যাট থেকে৷ বুমরাহ খাতা খোলার আগেই রানআউট হন৷ জাদেজা অপরাজিত থাকেন ব্যক্তিগত ৮৬ রানে৷ ১৫৬ বলের ইনিংসে তিনি ১১টি চার ও একটি ছক্কা মারেন৷

দ্বিতীয় দফায় ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ড তৃতীয় দিনের চায়ের বিরতিতে বিনা উইকেটে ২০ রান তোলে৷ দিনের শেষ সেশনে দু’উইকেট হারাতে হলেও স্কোর বোর্ডে আরও ৯৪ রান যোগ করে ইংল্যান্ড৷ ওপেনার জেনিংসকে অনবদ্য ইনস্যুইঙ্গারে বোল্ড করেন শামি৷ জেনিংস শামির ভিতরে আসা বলে জাজমেন্ট দিয়ে আউট হন৷ আউট হওয়ার আগে ৩৮ বলে ১০ রান করেন তিনি৷

আরও পড়ুন: আতস কাঁচের তলায় কোহলিদের পারফরম্যান্স

মঈন আলি তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ২০ রান করে জাদেজাপ শিকার হন৷ দিনের বাকি সময়ে কুকের সঙ্গে জুটি বাঁধেন দলনায়ক রুট৷ তৃতীয় উইকেটের জুটিতে ইতিমধ্যেই ৫২ রান যোগ করেছেন দু’জনে৷ কুক ৪৬ ও রুট ২৯ রানে ব্যাট করছেন৷

Advertisement
---